যশোর ও কালীগঞ্জে পরিবহনের চাপায় প্রাণ গেল চার জনের

11

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর ও ঝিনাইদহে পরিবহনের চাপায় ভ্যান চালকসহ ৪ যাত্রী ঘটনাস্থলে নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন তিন যাত্রী। বৃহস্পতিবার দুপুরে যশোর শহরের চাঁচড়া-পালবাড়ি রোডের গাজীরবাজার এলাকায় ভ্যানযাত্রী নানী-নাতনি নিহত ও ২ জন আহত এবং সকাল সাড়ে ১০ টার ঝিনাইদহের বারবাজার পিরোজপুরে ভ্যানকে পরিবহন চাপা দিলে চালকসহ ২ জন নিহত ও একজন আহত হন।

যশোরে নিহতরা হলেন, যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রামের গফুর মোড়লের স্ত্রী জাহানারা বেগম (৬০) ও সিরাজসিংহা গ্রামের সুজায়েত সরদারের মেয়ে সুমাইয়া খাতুন (২২)। নিহতরা সম্পর্কে নানী-নাতনি। এ ঘটনায় সিরাজসিংহা গ্রামের লিটন সরদারের মেয়ে তুলি (১২) ও ভ্যান চালক একই গ্রামের সাধন দাসের ছেলে উত্তম দাস আহত হয়েছেন। আহতদের যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
যশোর ট্রাফিক পুলিশের ইনচার্জ মাহবুব কবির জানান, চাঁচড়া থেকে ইঞ্জিন ভ্যানে করে নাতনিকে নিয়ে শহরে আসছিলেন জাহানারা বেগম। ভ্যানটি গাজীরবাজার রেলক্রসিংয়ের খাদে পড়ে উল্টে যায়। এসময় দ্রুত গতির একে ট্রাভেলস’র একটি পরিবহন তাদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান নানী ও নাতনি। স্থানীয়রা আহত দু’জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

তিনি আরও জানান, দুর্ঘটনার পর পরিবহন চালক ও তার সহকারী পালিয়ে যায়। বাসটি আটক করে যশোর পুলিশ লাইনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালীগঞ্জ থেকে জানান, বৃহস্পতিবার সকালে বারবাজার পিরোজপুর বটতলায় কালীগঞ্জ থেকে যশোর অভিমুখে শাপলা পরিবহনের একটি দ্রুতগামী বাস ভ্যানকে চাপা দিলে এ চালক বাদেডিহি গ্রামের মৃত জাহাবক্সের ছেলে মহিদুল ইসলাম (৫০) ও ভ্যানের যাত্রী পিরোজপুর গ্রামের মোশারফ হোসেনের স্ত্রী তাসলিমা বেগম (৪০) নিহত হয়। এছাড়া আহত হয় তাসলিমা বেগমনের মা জয়তুন বেগম (৭০)।
কালীগঞ্জ থানার এসআই আশিকুল হক জানান, তাসলিমা বেগম তার মা জয়তুন বেগমকে ডাক্তার দেখিয়ে ভ্যানযোগে বারোবাজার থেকে পিরোজপুর গ্রামে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে পিরোজপুর বটতলা নামক স্থানে পৌঁছালে কালীগঞ্জ থেকে যশোরগামী শাপলা পরিবহনের একটি বাস ভ্যানটিকে চাপা দেয়। এ সময় ঘটনাস্থলে ভ্যান চালক মহিদুল ইসলাম নিহত হয়। এছাড়া আহত তাসলিমা বেগম ও তার মা জয়তুন বেগমকে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তাসলিমা মারা যান। বর্তমানে তাসলিমা মা জয়তুন বেগম আহত অবস্থায় সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এদিকে এ ঘটনার প্রতিবাদে ঝিনাইদহ-যশোর মহাসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী। এতে বন্ধ হয়ে যায় উভয় পাশের যানচলাচল। সড়কের দুই পাশে গাড়ির দীর্ঘ লাইন পড়ে যায়। ঘটনার খবর পেয়ে ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার ঘটনাস্থলে পৌঁছে এলাকাবাসীকে শান্ত করেন। প্রায় দেড় ঘণ্টা পর সড়কে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়।

কালীগঞ্জ থানার থানার ওসি মুহা. মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান, পিরোজপুর নামক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় ভ্যানচালকসহ দু’জন নিহত ও একজন আহত হয়েছেন। পুলিশ বাসটি আটক করেছে। তবে ড্রাইভার পালিয়ে গেছে।