কেশবপুরে জমি বিক্রির টাকা না দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি ॥ কেশবপুরে মিজানুর রহমান শিমুল নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে টাকা না দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

কেশবপুর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের মৃত আজিজ মোড়লের ছেলে মাহাবুবুর রহমান জুয়েল জানান, নগদ টাকার প্রয়োজনে মণিরামপুর উপজেলার ঢাকুরিয়া গ্রামের মৃত শওকত আলীর ছেলে মিজানুর রহমান শিমুলের নিকট ৭৪ নং বালিয়াডাঙ্গা মৌজার ২৮২ দাগের বাস্তভিটা থেকে ৫ শতক জমি ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার চুক্তিতে বিক্রয় করা হলে তিনি নগদ ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা এবং বাকি ৪ লাখ ৯০ হাজার টাকার সোনালী ব্যাংক কেশবপুর শাখায় সঞ্চয়ী হিসাবের ৩টি চেক প্রদান করলে ৩শ’ টাকার স্ট্যাম্পে একটি চুক্তিপত্র করা হয়। চুক্তিপত্র অনুযায়ী মিজানুর রহমান শিমুলের নামে ৫ শতক জমি রেজিস্ট্রি করে দেয়া হয়। কিন্তু জমি রেজিস্ট্রির পর থেকে বাকি ৪ লাখ ৯০ হাজার টাকা না দিয়ে বিভিন্ন তালবাহানায় ঘুরাতে থাকে। যার কারণে টাকা আদায়ের জন্য গত ২৫ আগস্ট কেশবপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়। অভিযোগ দায়ের করার পর মিজানুর রহমান শিমুল পলাতক রয়েছে। এদিকে মিজানুর রহমান শিমুলের দেওয়া ৪ লাখ ৯০ হাজার টাকার চেক ১ সেপ্টেম্বর সোনালী ব্যাংক কেশবপুর শাখায় সঞ্চয়ী হিসাবে জমা দিলে এ্যাকাউন্টে কোন টাকা না থাকায় চেক ডিজঅনার হয়। এব্যাপারে মাহাবুবুর রহমান জুয়েল আরো জানান, চেক প্রতারণের অভিযোগে তিনি মিজানুর রহমান শিমুলের বিরুদ্ধে আদালতের স্মরণাপন্ন হবেন।

শেয়ার