যশোরে এসেছে অক্সফোর্ড’র করোনার টিকা, শনিবার থেকে দেয়া শুরু

চার মাস প্রতীক্ষার পর দ্বিতীয় ডোজ নেয়ার সুযোগ

এস হাসমী সাজু
কোভিড-১৯ প্রতিরোধী অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ টিকা নেয়ার পর যশোরে দ্বিতীয় ডোজের জন্য অপেক্ষায় থাকাদের জন্য সুখবর দিয়েছে স্বাস্থ্যবিভাগ। দীর্ঘ চার মাস প্রতীক্ষার পর আগামী শনিবার থেকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় ডোজ কোভিড-১৯ টিকা নিতে পারবেন। ইতোমধ্যে ৩৬ হাজার ছয়শ ডোজ ভ্যাকসিন যশোরে এসেছে। বুধবার ভোরে জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন তা গ্রহণ করেছেন। অ্যাস্ট্রাজেনেকার সাথে যশোরে এসেছে সিনোফার্মের আরো ২৮ হাজার আটশ ডোজ টিকা। অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় ডোজ কোভিড-১৯ টিকা শুধুমাত্র যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে দেয়া হবে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন।

এদিকে আগামী শনিবার থেকে পৌরসভার ৯টি ও ইউনিয়ন পর্যায়ে সাবেক ৯১টি ইউনিয়নে গণটিকা কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। টিকা কার্যক্রম তদারকির জন্য ৯ সদস্যের একটি কমিটি ও মেডিকেল টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে।
সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. রেহনেওয়াজ জানান, সারা দেশের সাথে আগামী ৭ আগস্ট থেকে যশোর জেলাতেও গণটিকা কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। ইতিমধ্যে পৌরসভা ও ইউনিয়ন কেন্দ্রিক সকল কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। পৌরসভা ও ইউনিয়নে টিকা কার্যক্রম তদারকি করার জন্য ৯টি মনিটরিং টিম গঠন করা হয়েছে। সদর উপজেলায় ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. সাইনূর সামাদ, ঝিকরগাছা উপজেলায় ডা. রেহেনেওয়াজ, যশোর পৌর এলাকায় ডা. মাশহুরুল হক, বাঘারপাড়া উপজেলায় ডা. এএনএম নাসিম ফেরদৌস, চৌগাছা উপজেলায় ডা. আশরাফুল ইসলাম, অভয়নগর উপজেলায় জেলা সিনিয়র স্বাস্থ্য কর্মকর্তা গিয়াস উদ্দিন, শার্শা উপজেলায় প্রশাসনিক কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান, কেশবপুর উপজেলায় জেলা ইপিআই সুপারিনটেনডেন্ট মির্জা ছরোয়ার হোসেন এবং মণিরামপুর উপজেলায় জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর শিশির কান্তি পাল মনিটরিং করবেন। এছাড়া টিকা পরবর্তী কোনো জটিলতা দেখা দিলে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে একটি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। এ বাদে জেলায় আট সদস্যের রেপিট রেস্পন্স টিম গঠন করা হয়েছে। তারা প্রতিটি কেন্দ্রের তাৎক্ষণিক সমস্যার সমাধান করার কাজ করবেন।

তিনি আরও জানিয়েছেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী আগামী ৭ আগস্ট থেকে গণটিকা কার্যক্রম চালাকালীন সময়ে জাতীয় পরিচয়পত্র (মূল কার্ড) নিয়ে অথবা অনলাইন সুরক্ষায় রেজিস্ট্র্রেশনের কপি নিয়ে কেন্দ্রে যেতে হবে। জেলার ১৮ ঊর্ধ্ব সকল নারী-পুরুষ সিনোফার্মার ভ্যাকসিন বা টিকা নিতে পারবেন। শুধুমাত্র জেলায় সাড়ে ৩৮ হাজার মানুষ অক্সফোর্ড- অ্যাস্ট্রাজেনেকার দ্বিতীয় ডোজ টিকা যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের কেন্দ্র থেকে নিতে পারবেন।

শেয়ার