অগাস্টেও খুলছে না শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

সমাজের কথা ডেস্ক॥ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকায় স্কুল-কলেজের চলমান ছুটি আরও এক মাস বাড়িয়েছে সরকার। বৃহস্পতিবার রাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

কোভিড-১৯ রোগ ছড়িয়ে পড়ায় গত বছরের মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।
মহামারী পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় কয়েক দফা পরিকল্পনা নিয়েও শিক্ষার্থীদের শ্রেণিকক্ষে ফেরানো যায়নি।
ভারতে পাওয়া করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমণ পরিস্থিতির আরও অবনতি হওয়ায় সর্বশেষ ৩১ জুলাই পর্যন্ত ছুটি বাড়িয়েছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সারা দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি আরও অবনতি হওয়ায় এবং কঠোর লকডাউন কার্যকর থাকায় শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মচারী ও অভিভাবকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং এবতেদায়ি ও কওমি মাদ্রাসার ছুটি বাড়ানো হয়েছে।
কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় পরামর্শক কমিটির সাথে পরামর্শ করে এই ছুটি বাড়ানো হয়েছে বলেও জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মত প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের চলমান ছুটিও ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত বাড়িয়েছে সরকার।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষায় সব সরকারি, বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের ছুটি বাড়ানোর এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।
শুক্রবার মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “এ সময় নিজেদের ও অন্যদের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুরক্ষার জন্য শিক্ষার্থীদের বাসায় অবস্থান করতে হবে, পাশাপাশি অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।”

শিক্ষার্থীদের বাসায় অবস্থানের বিষয়টি অভিভাবকদের নিশ্চিত করতে এবং স্থানীয় প্রশাসনকে তা পর্যবেক্ষণ করতে নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রণালয়।

“শিক্ষার্থীরা যাতে বাসসায় অবস্থান করে নিজ নিজ পাঠ্যবই অধ্যয়ন করে, সে বিষয়টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা সংশ্লিষ্ট অভিভাবকদের মাধ্যমে নিশ্চিত করবেন।”

মহামারীর কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। কয়েক দফা পরিকল্পনা করেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আর খোলা সম্ভব হয়নি।

 

শেয়ার