ঈদ সামনে রেখে সুন্দরবন পশ্চিম বিভাগে নেওয়া হয়েছে বাড়তি সতর্কতা

কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥ পবিত্র ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্য ও বনজ সম্পদ রক্ষায় সর্বোচ্চ সর্তকতা ও নিরাপত্তা জোরদার করেছে বন বিভাগ। এ জন্য সুন্দরবনের পশ্চিম বিভাগের সব কর্মকর্তা ও বনরক্ষীদের কর্মস্থল ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করে সার্বক্ষণিক টহলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সর্বপরি বন বিভাগের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ঈদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বন বিভাগ।

জানা গেছে, ঈদের পুর্বে সুযোগ বুঝে এক ধরনের অসাধু চক্র সুন্দরবনের বিভিন্ন এলাকায় হরিণ শিকার, বিষ প্রয়োগে মাছ আহরণ ও গাছ পাচার করে থাকে। আর এই সুযোগ যাতে কাজে লাগাতে না পারে তার জন্য খুলনা রেঞ্জের বিভিন্ন স্টেশন কর্মকর্তা ও টহল ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে টিম গঠন করে টহল কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে ও সুন্দরববের মৎস্য প্রজনন মৌসুম উপলক্ষে সুন্দরবনে বর্তমান জনসাধারণ প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এর পরেও কিছু মানুষ সুন্দরবনে প্রবেশ করে অপরাধ কর্মকান্ডের চেষ্টা করছে। সেটিকে প্রতিহত করতে খুলনা রেঞ্জের সহকারি বন সংরক্ষক (এসিএফ) মোঃ সালেহ কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি সার্বক্ষনিক তদারকির পাশাপাশি নিজেও টহল কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। এ ছাড়া সুন্দরবনের সম্পদ রক্ষায় স্মার্ট পেট্রোলিং এর মাধ্যমে বনের অপরাধ প্রবনতা প্রতিরোধে টহল কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হয়েছে। সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) ড. মোঃ আবু নাসের মোহসীন হোসেন এ প্রতিবেদককে বলেন, ঈদুল আযহা উপলক্ষে বেপরোয়া হয়ে উঠে বিষ দিয়ে মাছ ধরা ও হরিণ শিকারীরা। এ কারণে অপরাধীদের সামাল দিতে সুন্দরবনে সতর্কতা ও নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ইতিমধ্যে সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মস্থল ত্যাগ না করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনি বিভিন্ন স্টেশন ও ফাঁড়িতে দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের টহল কার্যক্রম জোরদার করার পাশাপশি নিজেও টহল কার্যক্রম চালাবেন বলে জানিয়েছেন।

শেয়ার