ফেসবুক বন্ধুর সাথে পালিয়ে যাওয়ায় যশোরে স্ত্রীসহ ৩ জনের নামে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ফেসবুক বন্ধুর সাথে পালিয়ে যাওয়ায় যশোরে স্ত্রীসহ তিনজনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে। গতকাল রোববার যশোর সদর উপজেলার ওসমানপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই মামলা করেন। বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট গৌতম মল্লিক মামলাটি আমলে নিয়ে আগামী ২৫ আগস্ট আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছেন। আসামিরা হলো, ঢাকার খিলগাঁও থানার নাসিরাবাদ নন্দীপাড়ার মকছেদ আলীর মেয়ে বাদী জাহাঙ্গীরের স্ত্রী মাফিয়া খাতুন, তার ফেসবুক বন্ধু আল-আমিন মিয়া ও তার মা আখিরন নেছা বেগম। বাদী জাহাঙ্গীর হোসেন মামলার অভিযোগে বলেছেন, মাফিয়া খাতুন তার স্ত্রী। স্বামীর অগোচরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে অপর আসামি আল-আমিন মিয়ার সাথে মাফিয়া খাতুনের বন্ধুত্ব সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ১০ জুলাই স্ত্রী মাফিয়া খাতুন তার স্বামীকে আল-আমিন মিয়ার সাথে ফেসবুকে বন্ধুত্বের কথা জানান। এরপর মাফিয়া খাতুন স্বামীর কাছে আবদার করেন যে, ফেসবুক বন্ধু আল-আমিন মিয়া তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসতে চান। স্ত্রীর অনুরোধ রক্ষা করতে জাহাঙ্গীর হোসেন মোবাইল ফোনে কল দিয়ে ফেসবুক বন্ধুকে যশোরে তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসতে বলেন। গত ১৫ জুলাই আল-আমিন মিয়া ও তার মা আখিরন নেছা বেগম যশোরে বেড়াতে আসেন। পরে স্ত্রীর অনুরোধে তাদের আপ্যায়ন করানোর জন্য জাহাঙ্গীর হোসেন কেনাকাটা করতে বাজারে যান। এদিন দুপুর ১২টার দিকে বাজার শেষে বাড়ি ফিরে তিনি দেখতে পান, ঘরের দরজা খোলা রয়েছে। কিন্তু ঘরে স্ত্রী মাফিয়া খাতুন এবং ফেসবুক বন্ধু আল-আমিন মিয়া ও তার মা আখিরন নেছা বেগম কেউই নেই। স্টিলের আলমারিতে রাখা নগদ ৩ লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং প্রায় ৩ ভরি স্বর্ণালঙ্কারও নেই। পরে জাহাঙ্গীর হোসেন স্ত্রীর মোবাইল ফোনে রিং দিলে তার নম্বর বন্ধ পান। এরপর ওইদিন রাত ৮টার দিকে মাফিয়া খাতুন তার স্বামীকে মোবাইল ফোন করে বলেন,‘আল-আমিন মিয়া ও তার মা আখিরন নেছা বেগম তাকে ভালো চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ঢাকা শহরের বাসায় এনে তাকে আটকে রেখেছে। এছাড়া তারা কাছ থেকে নগদ ২ লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং স্বর্ণালঙ্কারও কেড়ে নিয়েছে।’ এ কথা শোনার পর জাহাঙ্গীর হোসেন মোবাইল ফোন করে আসামি আল-আমিন মিয়া ও তার মা আখিরন নেছা বেগমের কাছে টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার ফেরৎ চাইলে তারা তা দিতে অস্বীকার করেন। এ কারণে জাহাঙ্গীর হোসেন উল্লিখিত আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে এই মামলা করেছেন।

শেয়ার