তালেবানের অগ্রগতিতে আফগানিস্তান ছাড়ল ‘৫০ ভারতীয় কর্মকর্তা’

সমাজের কথা ডেস্ক॥ আফগানিস্তানের অধিকাংশ এলাকা তাদের হাতের মুঠোয় চলে আসছে, তালেবানের এমন দাবির মুখে প্রায় ৫০ জন ভারতীয় কূটনীতিক ও কর্মী তাদের কান্দাহার কনস্যুলেট ছেড়েছেন বলে খবর ভারতীয় গণমাধ্যমের।

কান্দাহারের আশপাশে আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলের প্রধান এলাকাগুলো দ্রুত নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিচ্ছে তালেবান যোদ্ধারা, পাশাপাশি আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলেও বড় ধরনের নিরাপত্তা উদ্বেগ তৈরি করেছে তারা; এ পরিস্থিতিতেই ভারত কূটনীতিক ও কর্মীদের সরিয়ে আনার এ পদক্ষেপ নিয়েছে বলে এনডিটিভি জানিয়েছে।

মঙ্গলবার কাবুলের ভারতীয় দূতাবাস জানিয়েছিল, এই দূতাবাস এবং কান্দাহার ও মাজার ই শরীফের কনস্যুলেট বন্ধ করার কোনো পরিকল্পনা তাদের নেই।

এর আগে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছিল, আফগানিস্তানের অবনতিশীল নিরাপত্তা পরিস্থিতির ওপর সতর্কভাবে নজর রাখছে তারা এবং ভারতীয় নাগরিকদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তার ওপর এর প্রভাবেরও দিকেও খেয়াল রাখছে।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রণালয়টির মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী বলেছিলেন, “আমরা পরিস্থিতি অনুযায়ী পদক্ষেপ নেবো।”

প্রায় ২০ বছর ধরে চলা যুদ্ধের ইতি টেনে অগাস্ট মাসের মধ্যে আফগানিস্তানে থেকে সব সেনা প্রত্যাহারের পদক্ষেপ নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও নেটো। এ পরিস্থিতিতে আফগানিস্তানজুড়ে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়েছে।

আফগানিস্তানের অবনতিশীল পরিস্থিতি নিয়ে ভারতের ক্রমবর্ধমান উদ্বেগের মধ্যে মঙ্গলবার দিল্লিতে নিযুক্ত আফগানিস্তানের রাষ্ট্রদূত ফরিদ মামুন্দজাই ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলার কাছে আফগানিস্তানের পরিস্থিতি নিয়ে ব্রিফ করেছেন।

গত সপ্তাহে কাবুলের ভারতীয় দূতাবাস, আফগানিস্তানে ভ্রমণরত, বসবাসরত ও কর্মরত সকল ভারতীয়কে সব ধরনের অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ এড়িয়ে চলতে ও তাদের নিরাপত্তার বিষযে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ দেয়।

আফগানিস্তানের পরিস্থিতিকে ‘বিপজ্জনক’ অবহিত করে তারা ভারতীয় নাগরিকরা অপহরণের মতো ‘গুরুতর হুমকির’ মধ্যে পড়তে পারে বলে সতর্ক করে।

শেয়ার