যশোরে কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যেও জনচলাচল কমছে না

 সর্বশেষ ৮ অভিযানে ১৬ মামলায় ৬ হাজার টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ দিনে দিনে যশোরে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে করোনা পরিস্থিতি। প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, সেই সাথে বাড়ছে মৃতের মিছিলও। গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় আরো ১৯৪ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এরই মধ্য দিয়ে জেলায় মোট শনাক্ত দাঁড়ালো আট হাজার ৯শ’ ৯০ জনে। আর গেল ১০ দিনে মারা গেছে ২৩ জন। এদিকে, এ পর্যন্ত জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছেন ৮ হাজার ৯৫৩ জন। মারা গেছেন ৯৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৬ হাজার ৭৪১ জন। এদিকে, জেলায় করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ হলেও কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যেও যশোরে জনগণ বাইরে বের হচ্ছে। যশোর পৌর এলাকা ও আশপাশের চারটি ইউনিয়নে চলাচলে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হলেও অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তা মানা হচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে যশোরের মৃত্যু ও করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে কঠোর বিধিনিষেধ নয়, কার্যকর লকডাউনের দাবি তুলেছেন সচেতন মহল। এছাড়া চলমান করোনা সংক্রমণ মোকাবেলায় জেলা প্রশাসনের বিধিনিষেধ না মানায় বৃহস্পতিবার জেলায় ৮টি অভিযানে ১৬টি মামলায় ৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

যশোর সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. রেহেনেওয়াজ রনি একটি ক্ষুদে বার্তায় জানান, বৃহস্পতিবার ১৯৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। যশোরে পিসিআর ল্যাব থেকে দেওয়া ফলাফলে ৩৭১ জনের নমুনায় ১৫৪ টি পজেটিভ। এর মধ্যে যবিপ্রবি ল্যাবে ৩৬২ নমুনায় ১৫৪ জন ও খুলনা ল্যাবে নয় জনের নমুনায় সবগুলো নেগেটিভ। এছাড়া যশোর জেনারেল হাসপাতালে র‌্যাপিড এন্টিজেন পরীক্ষায় ৯৩ নমুনায় ৪০ জনের পজেটিভ এসেছে। এদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ছয় হাজার ৭৪০ জন। বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৯১ জন।
জানা যায়, গত ৯ জুন থেকে যশোর পৌর এলাকা ও নওয়াপাড়া পৌরসভা এলাকায় কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে প্রশাসন। ওই দিন জেলায় ৩৬৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৫২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ছিলো ৫৩ শতাংশ। ওই দিন করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান দুইজন। এরপর বিধি নিষেধ চলাকালেই যশোরে করোনা পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। প্রতিনিয়ত আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। বাড়ছে মৃত্যুর মিছিলও। সর্বশেষ গতকাল বৃহস্পতিবার ৪৬৪ জনের নমুনার ফলাফলে শনাক্ত সংখ্যা ১৯৪ জন। আক্রান্তের হার ছিলো ৪২ শতাংশ। এদিন মারা যান ৩ জন। এর আগে, ১৬ জুন ৪০৯ জনের নমুনার ফলাফলে শনাক্ত সংখ্যা ২০৬ জন। আক্রান্তের হার ছিলো ৫০ দশমিক ৪ শতাংশ। মারা যায় ৩ জন। ১৫ জুন ৫১১ জনের নমুনার ফলাফলে শনাক্ত সংখ্যা ২৩৫ জন। আক্রান্তের হার ছিলো ৪৬ শতাংশ। মারা যান তিনজন। ১৪ জুন ২৫২ জনের নমুনার ফলাফলে শনাক্ত সংখ্যা ৯২ জন। যার শতকরা শনাক্ত ৩৬ দশমিক ৩ শতাংশ। মারা যান পাঁচজন। ১৩ জুন ৪০৩ জনের নমুনার ফলাফলে শনাক্ত সংখ্যা ১৫০ জন। যার শতকরা শনাক্ত ৩৭ দশমিক ৩। ১২ জুন ২০৬ জনের নমুনার ফলাফলে শনাক্ত সংখ্যা ৬১ জন। যার শতকরা শনাক্ত ৩০ শতাংশ। মারা যান তিনজন। ১১ জুন ২৮৪ জনের নমুনার ফলাফলে শনাক্ত সংখ্যা ৭৮ জন। যার শতকরা শনাক্ত ২৭ শতাংশ। মারা যান দুইজন। ১০ জুন বৃহস্পতিবার ৪ শ’ ৪৬ জনের নমুনায় শনাক্ত হয় ১৯৪ জন। যার শতকরা শনাক্ত ৪৩ দশমিক ৫ শতাংশ। মারা যান একজন।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের তথ্য অনুযায়ী, হাসপাতালের রেড জোনে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রোগী ৯১ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ২৬ জন ও ছাড়পত্র পেয়েছেন ৯ জন। এছাড়া হাসপাতালে ইয়োলো জোনে চিকিৎসাধীন আছেন ৪০ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৩২ জন ও ছাড়পত্র পেয়েছেন ৩৬ জন।

শেয়ার