পয়েন্ট পেয়ে বাছাই শেষের আশা বাংলাদেশের

সমাজের কথা ডেস্ক॥ দলের শক্তি ও প্রাপ্তির বিবেচনায় গ্রুপে দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান ওমানের। সাত ম্যাচের দুটিতে তারা হেরেছে। দুই ম্যাচই কাতারের বিপক্ষে। পয়েন্ট টেবিলেও আছে কাতারের পর। অন্যদিকে বাংলাদেশের অবস্থান তলানিতে। প্রাপ্তি বলতে দুই ড্র। বাছাইয়ে নিজেদের শেষ ম্যাচে জেমি ডের দলের চাওয়া, আরেকবার পয়েন্টের স্বাদ পাওয়া।

কাতারের দোহায় জসিম বিন হামাদ স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার ২০২২ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে মুখোমুখি হবে দুই দল। ম্যাচটি মাঠে গড়াবে আজ বাংলাদেশ সময় রাত ১১টায়।
করোনাভাইরাসের কারণে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে কাতারে গিয়ে খেলা তিন ‘হোম ম্যাচের’ দুটিতে বাংলাদেশের প্রাপ্তি একটি করে ড্র ও হার। আফগানিস্তানকে ১-১ গোলে রুখে দেওয়ার পর জেমির দল ভারতের কাছে হারে ২-০ ব্যবধানে।

পাঁচ জয়ে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ওমান শেষ দুই ম্যাচে স্বাগতিক কাতারের কাছে ১-০ গোলে হারের পর আফগানিস্তানের বিপক্ষে জিতেছে ২-১ ব্যবধানে। প্রথম লেগে নিজেদের মাঠে বাংলাদেশকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল তারা।

কাতার ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে ওমানের ম্যাচ দুটি দেখেছে দল। প্রতিপক্ষের শক্তি, দুর্বলতা সম্পর্কে জেনে প্রস্তুতি নেওয়ার কথা জানালেন ডিফেন্ডার তপু বর্মন। গুরুত্ব দিলেন একটা দল হয়ে খেলার ওপর।
“ওমান সম্পর্কে ভালো ধারনা আছে আমাদের। কাতার ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে ওদের শেষ দুইটা খেলা দেখেছি। সেখান থেকে তাদের শক্তি ও দুর্বলতার জায়গা দেখেছি। তা নিয়ে কোচ আমাদের সঙ্গে কাজ করেছেন। তাদেরকে কিভাবে আমরা আটকাব, তাদের বিপক্ষে কিভাবে আক্রমণ করব, এগুলো নিয়ে অনেক কাজ করেছি।”

“আমার মনে হয়, দলীয়ভাবে যদি ভালো পারফরম করতে পারি, অবশ্যই তাদের থেকে এক পয়েন্ট নিতে পারব। যেহেতু এটা আমাদের বাছাইয়ের শেষ ম্যাচ, আপনারা দোয়া করবেন, যাতে আমরা ভালো একটা ফল পেতে পারি।”

বাছাইয়ে এ পর্যন্ত ১৬ গোল খেয়ে মাত্র ৩টি দিতে পেরেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে একটি ওমানের বিপক্ষে। প্রথম লেগে গোলটি করেছিলেন বিপলু আহমেদ। ফিরতি লেগে ওই গোল দলের অনুপ্রেরণার উপলক্ষ হতে পারে বলে মনে করেন তিনি।

“ওমানের বিপক্ষে আমাদের যারা খেলবে, তাদের ভালো একটা ধারনা আছে প্রতিপক্ষ সম্পর্কে। এর আগে আমরা যখন ওমানের বিপক্ষে তাদের মাঠে খেলেছি, তখন ৫০ মিনিট গোল খাইনি, কিন্তু পরে হয়তবা সামান্য ভুলের জন্য গোল খেয়েছি। ওই ম্যাচে একটা গোলও করেছিলাম। আমি মনে করি, আমার ওই গোলটি ওমানের বিপক্ষে আমাদের খেলোয়াড়দের জন্য অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে।”

“আমাদের খেলোয়াড়দের গোল করার সামর্থ্য আছে। যদি আমরা সেরা পারফরম করতে পারি, কোচ যেভাবে বলে দিয়েছেন, সেটা করতে পারি, তাহলে ইনশাল্লাহ ওমানের কাছ থেকে এক পয়েন্ট নিতে পারি।”

শেয়ার