নিজের জয়ে বাংলাদেশের জয় দেখছেন মুশফিক

সমাজের কথা ডেস্ক॥ প্রথম সবকিছুর ভালো লাগাই আলাদা। দেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দা মান্থ’ এর স্বীকৃতি পেয়ে দারুণ খুশি মুশফিকুর রহিমও। তবে এই অর্জন তার কাছে কেবল ব্যক্তিগত নয়, এতে বাংলাদেশের জয়ও দেখছেন অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান।

পাকিস্তানের হাসান আলি, শ্রীলঙ্কার প্রাভিন জয়াবিক্রমাকে পেছনে ফেলে আইসিসির মে মাসের সেরা নির্বাচিত হয়েছেন মুশফিক। সোমবার তা প্রকাশ করে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্তা সংস্থা।

গত মাসে লঙ্কানদের বিপক্ষে ব্যাট হাতে অসাধারণ পারফরম্যান্সের পুরস্কার হিসেবে মুশফিক জায়গা করে নিয়েছিলেন মাস সেরার সংক্ষিপ্ত তালিকায়। আইসিসির ভোটিং একাডেমি ও সমর্থকদের ভোটে জিতেছেন তিনি এই সম্মাননা।

স্বীকৃতি পাওয়ার দিন অবশ্য ব্যাট হাতে ব্যর্থ ছিলেন মুশফিক। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টিতে আবাহনীর হয়ে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের বিপক্ষে শূন্য রানে আউট হন তিনি। তবে ম্যাচটি ডাকওয়ার্থ-লুইস-স্টার্ন পদ্ধতিতে ৪৯ রানে জেতে তার দল।

ম্যাচ শেষে এক ভিডিও বার্তায়, তাকে মাস সেরা নির্বাচিত করার জন্য আইসিসি ও সমর্থকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান মুশফিক।

“প্রথমে আইসিসিকে ধন্যবাদ, আমাকে মে মাসের জন্য মনোনয়ন দেওয়ার জন্য। তার চেয়ে বড় ধন্যবাদ তাদের, যারা আমাকে ভোট দিয়েছে। আমি মনে করি, এটা শুধু আমাকে না, বাংলাদেশকে আপনারা জিতিয়েছেন।”

“শুধু মান্থ অব দা প্লেয়ার না, আমি চেষ্টা করব সারা বছর জুড়ে যেন আমার এই ধারাবাহিক পারফরম্যান্স বজায় থাকে। বাংলাদেশকে যেন আমি আরও অনেক ভালো ইনিংস, ম্যাচ জেতানো ইনিংস উপহার দিতে পারি।”

মুশফিকের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সেই লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো সিরিজ জয়ের রেকর্ড গড়ে বাংলাদেশ। যেখানে প্রথম দুই ম্যাচে দলের বিপদে হাল ধরে জয়ের ভিত গড়ে দেন তিনি। প্রথম ওয়ানডেতে খেলেন ৮৪ রানের ইনিংস। দ্বিতীয়টিতে করেন ১২৫ রান। তিন ম্যাচের সিরিজ এক ম্যাচ বাকি থাকতেই জিতে যায় স্বাগতিকরা।

শেষ ম্যাচে মুশফিকের ব্যাট থেকে আসে ২৮ রান। সব মিলিয়ে ২৩৭ রান নিয়ে সিরিজ সেরার পুরস্কারও জেতেন তিনি।

শেয়ার