ভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে ‘করোনা দেবীর’ পূজা ভারতে

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ‘স্বর্গীয় হস্তক্ষেপ’ প্রাণঘাতী ভাইরাসকে তাড়িয়ে দেবে, এই আশায় ‘করোনা দেবীর’ মন্দির প্রতিষ্ঠা করে পূজা দিচ্ছেন ভারতের গ্রামবাসীরা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানাচ্ছে, দেশটির উত্তর প্রদেশের শুক্লাপুর গ্রামের ভক্তরা গত সপ্তাহে উজ্জ্বল হলুদ রঙয়ের একটি মন্দির গড়ে তুলে সেখানে ‘করোনা মাতার’ প্রতিমা স্থাপনের পর থেকে গঙ্গা জল ও ফুল দিয়ে পূজা, অর্চনা করে চলছেন।

“হয়তো তার আশীর্বাদে গ্রামবাসীরা, আমাদের গ্রাম ও অন্য সবাই কিছুটা ছাড় পেতে পারে,” নিজেকে সঙ্গীতা বলে পরিচিয় দেওয়া একজন গ্রামবাসী শুক্রবার রয়টার্সকে একথা বলেন।

এপ্রিল ও মে মাসে করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে পর্যদুস্ত হয়ে পড়েছিল ভারত, তবে সবচেয়ে কঠিন সময় পার হয়ে যাওয়ার লক্ষণ এখন দৃষ্টিগোচর হচ্ছে।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যে দেখা গেছে, শনিবার সকালের আগের ২৪ ঘণ্টায় সেখানে ৮৪ হাজার ৩৩২ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে; যা ৭০ দিনের মধ্যে সর্বনি¤œ দৈনিক শনাক্ত।

নতুন আক্রান্তদের নিয়ে দেশটিতে শনাক্ত রোগীর মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই কোটি ৯৩ লাখ ৫৯ হাজার ১৫৫ জনে; আক্রান্তের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের পর বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে আছে দেশটি।

একই দিন দেশটিতে কোভিড-১৯ এ ৪০০২ জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এদের নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের পর করোনাভাইরাস মহামারীতে মৃতের সংখ্যায় তৃতীয় স্থানে থাকা ভারতে মোট মৃত্যু হয়েছে তিন লাখ ৬৭ হাজার ৮১ জনের।

রয়টার্স জানিয়েছে, শুক্লাপুর গ্রামবাসীদের আরাধনার জবাব এখনও পুরোপুরি পাওয়া যায়নি, কারণ তাদের জেলায় এদিনও কিছু রোগী পাওয়া গেছে। তবে মহামারী যখন সবচেয়ে তীব্র হয়ে উঠেছিল সেই তুলনায় এখন রোগীর সংখ্যা অনেকটাই কমেছে।

 

শেয়ার