যশোরে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকা ভারতফেরত দুই রোগীর মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকা ভারতফেরত দ্ইু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এরা হলেন, শরীয়তপুরের পালং উপজেলার রুদ্রকর গ্রামের বাসিন্দা বিমল চন্দ্র দে (৬০) ও নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকার আব্দুল আওয়ালের স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন (৩৩)। যশোরের বক্ষব্যাধি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার বিকেলে বিমল চন্দ্র এবং বুধবার (১২ মে) আম্বিয়া খাতুনের মৃত্যু হয়। বিমল ক্যান্সারে ও আম্বিয়া কিডনিজনতি রোগে অসুস্থ ছিলেন।

হাসপাতাল ও হোটেল সূত্র জানায়, ক্যান্সার আক্রান্ত বিমল চন্দ্র দে ভারতে চিকিৎসা গ্রহণ করে গত ৮ মে বেনাপোল বন্দর দিয়ে দেশে প্রবেশ করেন। এরপর তিনি যশোর শহরের বলাকা হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। রোববার বিকেলে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে যশোর বক্ষব্যধি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। যশোরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কাজী সায়েমুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত বুধবার (১২ মে) রাতে যশোরে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকা ভারতফেরত রোগী আম্বিয়ার মৃত্যু হয়।

হোটেল সূত্র জানায়, গত ৭ মে ভারতফেরত আম্বিয়াকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। আম্বিয়া খাতুন কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন। তিনি ভারতে এ রোগের জন্য চিকিৎসায় গিয়েছিলেন। বুধবার সন্ধ্যার দিকে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে বিষয়টি জেলা প্রশাসনকে অবহিত করা হয়। এরপর রাত আটটার দিকে তাকে অ্যাম্বুলেন্সযোগে বক্ষব্যাধি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তিনি মারা যান।
যশোর সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, আম্বিয়া খাতুন কিডনি ফেইলিওর, ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপজনিত রোগী ছিলেন। অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে দ্রুত হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত দশটার দিকে তিনি মারা যান।

শেয়ার