বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ক্যাম্পে ফিরলেন তপু, ইব্রাহিম, তারিক

সমাজের কথা ডেস্ক॥ নেপালের বিপক্ষে সবশেষ ত্রিদেশীয় ফুটবল টুর্নামেন্ট খেলে আসা সবাই ঠাঁই পেয়েছেন ক্যাম্পের দলে। ফিরেছেন অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার তপু বর্মন, ফিনল্যান্ড প্রবাসী বসুন্ধরা কিংসের ডিফেন্ডার কাজী তারিক রায়হান এবং মিডফিল্ডার মোহাম্মদ ইব্রাহিমও।

২০২২ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বে আগামী জুনে আফগানিস্তান, ভারত ও ওমানের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। সবগুলো ম্যাচই হবে কাতারে। এ উপলক্ষে শনিবার সব মিলিয়ে ৩৩ জনের ক্যাম্পের দল ঘোষণা করেন জেমি ডে।

ছোট-খাট চোট আর ফর্মহীনতার কারণে নেপালে দলের সঙ্গী হতে পারেননি পুরনোদের অনেকে। তাদের মধ্যে ক্যাম্পের দলে ফিরেছেন তপু, ইব্রাহিম, তারিক। লম্বা সময় পর জাতীয় দলের দরজা খুলেছে শেখ জামালের অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার রেজাউল করিমের জন্য।

চোটের কারণে বাইরে নির্ভরযোগ্য ফরোয়ার্ড নাবীব নেওয়াজ জীবন। কলকাতায় অস্ত্রোপচার শেষে দেশে ফিরে বর্তমানে বেনাপোলেই কোয়ারেন্টিনে আছেন আবাহনী লিমিটেডের এই ফরোয়ার্ড।

আগামী সোমবার শুরু হবে ক্যাম্প। লিগের খেলা চলমান থাকায় বুধবার পর্যন্ত ক্যাম্পে যোগ দিতে পারবেন খেলোয়াড়রা। হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে শুরু হবে আবাসিক প্রস্তুতি। শুরুতে সবাইকে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হবে।

আগামী ১৪ মে মালদ্বীপে শুরু হওয়ার কথা এএফসি কাপের গ্রুপ পর্বের খেলা। স্বাভাবিকভাবে তাই ঢাকার ক্যাম্পে ক্যাম্পে যোগ দিতে পারবেন না এএফসি কাপে খেলা বসুন্ধরা কিংসের ফুটবলাররা। তারা মালদ্বীপ থেকে কাতারে পাড়ি জমাবেন।

বাছাইয়ের আগে প্রস্তুতি শানিয়ে নিতে কাতারে গিয়ে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন ন্যাশনাল টিমস কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদ।

“যেহেতু লিগের ম্যাচ চলছে। ডাক পাওয়া খেলোয়াড়দের মধ্যে যাদের খেলা শেষ হবে তারাই ক্যাম্পে যোগ দেবে। কোভিড-১৯ পরীক্ষার পর শুরু হবে মাঠের প্রস্তুতি। খেলোয়াড়রা এএফসি কাপ শেষে সরাসরি মালদ্বীপ থেকে যাবে। বাকিরা যাবে ঢাকা থেকে ২১ বা ২২ মে’র মধ্যে। সেখানে গিয়ে শীর্ঘ পর্যায়ের দুটি দলের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার অনুরোধও করেছি আমরা।”

সূচি অনুযায়ী আগামী ৩ জুন আফগানিস্তানের বিপক্ষে, ৭ জুনে ভারতের বিপক্ষে এবং ১৫ জুনে ওমানের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ।

পাঁচ ম্যাচে চার হার ও এক ড্রয়ে ‘ই’ গ্রুপের তলানিতে আছে বাংলাদেশ। কলকাতার সল্টলেক স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে ড্র করে একমাত্র পয়েন্ট পেয়েছিল জেমির দল।
ক্যাম্পের দল: আনিসুর রহমান, বিশ্বনাথ ঘোষ, রিমন হোসেন, মাশুক মিয়া জনি, বিপলু আহমেদ, মাহবুবুর রহমান সুফিল, মতিন মিয়া, তপু বর্মন, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, কাজী তারিক রায়হান, শহিদুল আলম সোহেল, সোহেল রানা, সাদ উদ্দিন, রহমত মিয়া, রিয়াদুল হাসান রাফি, ইয়াসিন আরাফাত, জামাল ভূইয়া, মেহেদী হাসান, মেহেদী হাসান রয়েল, মোহাম্মদ ইমন, আশরাফুল ইসলাম রানা, মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, মানিক হোসেন মোল্লা, রাকিব হোসেন, রেজাউল করিম, হাবিবুর রহমান সোহাগ, সুমন রেজা, মোহাম্মদ জুয়েল।
অনূর্ধ্ব-২৩ দলের খেলোয়াড়: মিতুল মারমা, মোহাম্মদ আতিকুজ্জামান, ইমরান হাসান রিমন, আবু সাইদ ও ফয়সাল আহমেদ ফাহিম।

শেয়ার