স্বাধীনতার ৫০ বছরেও স্বীকৃতি মেলেনি মাগুরার মুক্তিযোদ্ধা ছরোয়ার মোল্যার

শালিখা (মাগুরা) প্রতিনিধি ॥ মাগুরার শালিখা উপজেলার মশাখালী গ্রামের মোঃ গোলাম ছরোয়ার মোল্যার এখনো মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি মেলেনি। মহান স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে দেশমাতৃকার টানে নিজের জীবন বাজি রেখে মাগুরার আঞ্চলিক অধিনায়ক ৩৮২ মোঃ গোলাম ইয়াকুব বীর প্রতীকের বাহিনীতে যোগদান করে দীর্ঘ ১ মাস ট্রেনিং শেষে মাগুরার-০৮ নং সেক্টরে, শালিখা, মহম্মদপুর, বুনাগাতী সহ বিভিন্ন রণাঙ্গনের যুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহণের মাধ্যমে লাল সবুজের বিজয় পতাকা ছিনিয়ে এনেছিলেন মুক্তিযোদ্ধা মোঃ গোলাম ছরোয়ার মোল্যা। এদিকে স্বাধীনতা যুদ্ধে তিনি বিজয়ী হলেও জীবনযুদ্ধে হয়েছেন পরাজিত। দেশ স্বাধীনের দীর্ঘদিন পরেও তিনি মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় অন্তর্ভূক্ত হতে পারেননি। তালিকাভুক্ত হওয়ার জন্য বিভিন্ন স্থানে ঘুরেও কোন সুফল পাননি। প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হয়েও শেষ পর্যন্ত তিনি স্বীকৃতি পাননি। তিনি ১৯৪৭ সালের পহেলা জুলাই জন্ম গ্রহন করেন ও ২০১৫ সালের ২৪ মে মৃত্যুবরণ করেন। তিনি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। বিগত বি,এন,পি সরকারের আমলে যাচাই বাচায়ে নাম দিতে চাইলে আওয়ামীলীগের দলীয় সমর্থন ও মুক্তিযোদ্ধা হওয়ায় বিএনপিপন্থি লোক তাকে বিভিন্নভাবে নাজেহাল করে। শালিখা থানার সর্বশেষ যাচাই বাছায়ের তালিকায় তার নাম অন্তর্ভূক্ত হয়। কিন্তু দীর্ঘদিন বি.এন.পি সরকার ক্ষমতায় থাকার কারনে মুক্তিযোদ্ধা সাময়িক সনদের কোন সুরহা হয়নি। মাগুরার শালিখা উপজেলার একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলর যাচাই-বাছাই এ সর্বশেষ-২০১০ সালে তার নাম অন্তর্ভূক্ত হয়। কিন্তু স্বাধীনতার ৫০ বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো তার স্বীকৃতি মেলেনি । এ ব্যাপারে শালিখা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু বক্কর মাস্টারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, মোঃ গোলাম ছরোয়ার মোল্যা একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা, তার সকল প্রকার কাগজ পত্রাদি যাচাই বাছাই পূর্বক তাকে মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অর্ন্তভূক্তির জন্য অনুরোধ করছি। এদিকে স্ত্রী সহ পরিবারের সকল সদস্যগণ সরোয়ার মোল্যাকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নিকট আকুল আবেদন জানিয়েছেন।

শেয়ার