যশোরে চোর সিন্ডিকেটের ৯ আসামি রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে ট্রাক ও মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটসহ তিনটি মামলার ৯ আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল মঙ্গলবার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুদ্দীন হোসাইন এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আসামিরা হলো, যশোর শহরের বকচর হুশতলার আইয়ুব আলী ছেলে ফারুক শেখ, মৃত জাহাঙ্গীর শেখের ছেলে মিঠু শেখ ওরফে বিপু শেখ, আবুল হোসেনের ছেলে জুয়েল শেখ, জামাই জুয়েল খাঁন, ঝুমঝুমপুরের আব্দুল কাদেরের ছেলে মরুফ হোসেন ও নীলগঞ্জ তাঁতীপাড়ার মৃত নুর মোহাম্মদের ছেলে গোলাম মোহাম্মদ, কেশবপুর উপজেলার বাঁশবাড়িয়া গ্রামের মৃত হেকমত আলীর ছেলে মোশারফ হোসেন বাবু, সাতক্ষীরার তালা উপজেলার তেরছি গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাক মোড়লের ছেলে আব্দুল হামিদ মোড়ল ও আলাদিপুর গ্রামের ফজলু শেখের ছেলে মহসিন শেখ।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ২ মে বিকেলে পুলিশ যশোর শহরের বকচর আলামিন ক্লথ স্টোরের ফাঁকা জমিতে অভিযান চালিয়ে ফারুক, মিঠু, জুয়েল শেখ, মারুফ, গোলাম ও জুয়েল খানকে আটক করা হয়। এসময় জিজ্ঞাসাবাদের তাদের কাছ থেকে চোরাই ৪টি ট্রাক ও দুইটি ট্রাকের চেসিস উদ্ধার করা হয়।

এব্যাপারে কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই হারুন অর রশীদ বাদী হয়ে আটক ৬জনসহ অজ্ঞাতনামা আরো ১০/১২ জনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন। তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক শেখ আবু হেনা মিলন আটক ৬ জনের ৭ দিন করে রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করেন। গতকাল মঙ্গলবার শুনানি শেষে প্রত্যেকের একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন বিচারক।

অপরদিকে গোপন সংসাদের ভিত্তিতে গত ২৮ এপ্রিল যশোরের ডিবি পুলিশ কেশবপুরের বাঁশবাড়িয়া গ্রামের মৃত হেরমত আলীর ছেলে মোশারফ হোসেন বাবু, সাতক্ষীরার তালা তেরছি গ্রামের মৃত রাজ্জাক মোড়লের ছেলে আব্দুল হামিদ মোড়ল ও আলাদিপুর গ্রামের ফজলু শেখের ছেলে মহসিন শেখসহ মোটরসাইকেল চোর সিন্ডিকেটের তিন সদস্যকে আটক করে। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় তিনটি মোটরসাইকেল, ৭টি মাস্টার চাবি ও ৮ টি মোবাইল ফোন। এব্যাপারে ডিবির এসআই ইদ্রিসুর রহমান বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন। তদন্ত কর্মকর্তা এসআই ফজলে রাব্বী মোল্যা আটক ওই তিন জনের ৭ দিন করে রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করেন। গতকাল মঙ্গলবার শুনানি শেষে বিচারক প্রত্যেকের একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

শেয়ার