ফুলতলা থেকে ভূগর্ভস্থ পানি উত্তোলনের প্রতিবাদে বেলা’র সাথে ভার্চুয়াল সভা

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥ খুলনা ওয়াশা কর্তৃক ফুলতলা থেকে ভূগর্ভস্থ পানি ২৫টি বুস্টার পাম্পের মাধ্যমে উত্তোলন ও পাইপ যোগে ২০ কিলোমিটার দুরে খুলনা শহরে টেনে নেয়ার প্রতিবাদে ফুলতলা উপজেলা পানি ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির উদ্যোগে মঙ্গলবার বেলা ১১টায় বেলা’র সাথে এক ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়। বেলার পক্ষে উপস্থিত ছিলেন হেড অব প্রোগ্রাম খোরশেদ আলম, মাঠ সমন্বয়কারী এ এম এম মামুন, বেলা খুলনার বিভাগীয় সমন্বয়কারী মাহফুজুর রহমান মুকুল, গবেষণা সমন্বয়কারী রেহমুনা নুরাইন নুপুর, আইনজীবী এড. জাকিয়া সুলতানা ও বেলা ঢাকার কর্মকর্তা রুমানা আফরোজ দিপ্তী। এ সময় ফুলতলা উপজেলা পানি ও পরিবেশ রক্ষা কমিটির পক্ষে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব শেখ আকরাম হোসেন, কমিটির আহবায়ক ও বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা সম্পাদক কম. আনছার আলী মোল্যা, আওয়ামীলীগের উপজেলা সাধারণ সম্পাদক ও কমিটির সদস্য সচিব সরদার শাহাবুদ্দিন জিপ্পী, আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ আসলাম খান, মৃনাল হাজরা, কামরুজ্জামান নান্নু, ওয়ার্কার্স পার্টির থানা সভাপতি সন্দিপন রায়, প্রেসক্লাব ফুলতলা সভাপতি তাপস কুমার বিশ্বাস, সহকারী অধ্যাপক মোঃ নেছার উদ্দিন, প্রভাষক জাহাঙ্গীর আলম, প্রভাষক গৌতম কুন্ডু, প্রভাষক রেজোয়ান হোসেন রাজা, আরিফুজ্জামান বাবলু, ডাঃ সরোজ কুমার সুর, সহযোগী অধ্যাপক আঃ রউফ, শিক্ষক প্রদ্যুৎ কুমার বিশ্বাস, বিজয় কৃষ্ণ হালদার, নূর হোসেন অঞ্জন, এস কে সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গতঃ ওয়াসা প্রকল্প অনুযায়ী খুলনায় প্রতিদিন ১ কোটি গ্যালন পানি ফুলতলা থেকে উত্তোলন করা হলে এলাকার পানির স্তর ধীরে ধীরে নিচে নেমে যাবে এবং অগভীর নলকুপ থেকে পানি পাওয়া যাবে না। ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হবে এই অঞ্চলের নার্সারী, মৎস্য খামার, চিংড়ি ঘের, ধানসহ বিভিন্ন ফসলের আবাদ। এ কর্মসূচি থেকে ওয়াশা সরে না আসলে আগামী ঈদের পর বড় ধরনের কর্মসূচি হাতে নেয়া হবে বলে এলাকার সর্বস্তরের জনগনের সিদ্ধান্তের বিষয়টি জানিয়ে দেয়া হয়।

শেয়ার