দম ফেলার ফুরসত নেই দর্জিপাড়ায়

ইমরান হোসেন পিংকু
পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে যশোরে ব্যস্ত সময় পার করছেন দর্জিপাড়ার কারিগররা। ঈদ যতো এগিয়ে আসছে ততো চোখের ঘুম হারাম হয়ে যাচ্ছে দর্জিদের। যারা নিজেদের পছন্দমতো কিংবা একটু ভিন্ন ডিজাইনের ফিটিং পোশাক পরতে পছন্দ করেন তারাই ভিড় করছেন শহরের নামিদামি ও পাড়া- মহল্লার বিভিন্ন দর্জির দোকানে।

সরেজমিনে দেখা যায়, নিউমার্কেট, এইচএম রোড, রেলরোডসহ শহরের বিভিন্ন অলিগলিতে টেইলার্সে’র কারিগররা নর-নারীদের পোশাক তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। পবিত্র ঈদুল ফিতরের আর মাত্র ৯ দিন বাকি। তাই এখন দর্জিদের হাতে মোটেও সময় নেই। কেননা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তৈরি পোশাক সরবরাহ করতে হবে। পছন্দের পোশাক বানাতে দর্জির দোকানগুলোতে ভিড় করছেন সৌখিন ক্রেতারা।

রোজার প্রথমে কাজ একটু কম হলেও প্রতিদিন সকাল থেকে শুরু করে রাতদিন চলছে সেলাইয়ের কাজ। কারিগরদের যেন দম ফেলার সময় নেই। এ যেন ঈদ উৎসবের পালে ঝড়ো হাওয়া। সবাই যে যার দায়িত্ব নিয়ে ব্যস্ত; কেউ বোতাম লাগানো, বোতামের ঘর সেলাই করা, কাপড় কাটায় ব্যস্ত কাটিং মাস্টার, কারও গলায় ফিতা, হাতে কাঁইচি, কেউ সেলাই করছে, পাশেই জমা হচ্ছে তৈরি পোশাকের স্তূপ। অপ্রয়োজনে কোনো কথা নেই তাদের মুখে; শুধু কাজ আর কাজ। সঠিকভাবে কাস্টমারের মাপ অনুযায়ী সেলোয়ার, কামিজ, শার্ট, প্যান্ট ভালোভাবে সময়মত বিতরণ করার জন্য বিরামহীন কাজ করছে প্রধান কাটিং মাস্টার ও তার সহকারীরা, এমনটাই দেখা যায় দর্জি দোকানগুলোতে।

যশোর শহরের ওয়াপদা গ্যারেজ মোড়ের মুন্নি টেইলার্স’র প্রোপ্রাইটর মোস্তাক হোসেন বলেন, ‘গত বছরে লকডাউনের কারণে প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিলো। ফলে কোনো ব্যবসা হয়নি। তবে এবছরে ভালোই কাজ হচ্ছে। আশা করছি ঈদের বাকি কয়দিন আরো কাজ পাবো।’

মারুফ টেইলার্স’র স্বত্বাধিকারী মারুফ হোসেনের সাথে আলাপকালে বলেন, ‘সারা বছর যে পরিমাণ কাজ হয়; তার চেয়ে দুই ঈদে কাজের পরিমাণ বেশি। তবে গত বছরের তুলনায় অর্ডার পাচ্ছি ভালোই।’
দর্জির দোকানে কথা হয় সাদিয়া নামের এক কলেজ ছাত্রীর সাথে। তিনি বলেন, ‘মার্কেট থেকে পোশাক কিনলে অন্যের পোশাকের সাথে মিলে যাবে। তাই অর্ডার দিয়ে নিজের চাহিদামত পোশাক তৈরি করছি।
লাকি আক্তার নামের আর এক ক্রেতা বলেন, ‘ঈদকে সামনে রেখে থ্রি পিস বানাতে দর্জির দোকানে এসেছি। মাপ দিয়ে পোশাক তৈরি করলে সেটা ফিটিং ভাল হয়। রেডিমেট পোশাক থেকে তৈরি করা ভালো। এজন্য তিনি দর্জির দোকানে এসেছেন।

শেয়ার