যশোরে মোবাইল ফোনে নারীর নগ্ন ছবি ধারণ করে চাঁদা দাবির অভিযোগে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরের এক নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মোবাইল ফোনে নগ্ন ছবি ধারণ করে ২০ হাজার টাকা চাঁদা না পেয়ে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগে ইন্দ্রজিত দাস নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। আসামি ইন্দ্রজিত দাস ফরিদপুর জেলার মধুখালি উপজেলার কলাগাছি গ্রামের মনোরঞ্জন দাসের ছেলে।

মামলা সূত্র মতে, যশোর সদর উপজেলার সাড়াপোল-রূপদিয়া গ্রামের বাসিন্দা ভুক্তভোগী নারীর সাথে ইন্দ্রজিতের মোবাইল ফোনে পরিচয়। এরপর তাকে বিয়ে করবে বলে যশোর শহরের বেজপাড়া নলডাঙ্গা রোডের বিধানের বাড়ির মেসে দেখা করতে বলে। সেখানে যাওয়ার পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ইন্দ্রজিত তার ব্যবহৃত মোবাইলে ওই নারীর নগ্ন ছবি ধারণ করে। এরপর তার কাছে ২০ হাজার টাকা দাবি করা হয়। আর ওই টাকা না দিলে ছবিগুলো ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দেয়। টাকা না দেয়ায় ইন্দ্রজিতের ব্যবহৃত ফেসবুক আইডিতে ছেড়ে দেয়। বিষয়টি মোবাইল ফোনে ওই নারী ও তার পরিবারকে জানানো হয়। কিন্তু ইন্দ্রজিতকে ইন্টারনেটে ছেড়ে না দেয়ার জন্য অনুরোধ করার পরেও গত ৫ ও ৮ ডিসেম্বর সেটা দিয়ে দেয়। গত ১৪ এপ্রিল ভুক্তভোগী বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করে।

শেয়ার