দ্রুততম মানব-মানবী সেই ইসমাইল-শিরিন

সমাজের কথা ডেস্ক॥ জাতীয় অ্যাথলেটিক্সের পর বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমসেও ১০০ মিটার স্প্রিন্টে সেরা হয়েছেন দুই চেনা মুখ মোহাম্মদ ইসমাইল ও শিরিন আক্তার।
বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের ট্র্যাকে শনিবার পুরুষ বিভাগের ১০০ মিটারে ১০ দশমিক ৫০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সেরা হন বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ইসমাইল। এ ইভেন্টে নৌবাহিনীর আব্দুল রউফ (১০ দশমিক ৬০ সেকেন্ড) রুপা ও বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর নাইম ইসলাম (১০ দশমিক ৭০ সেকেন্ড) ব্রোঞ্জ পেয়েছেন।
গত বছর চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে হওয়া জাতীয় অ্যাথলেটিক্সে ইসমাইল ১০ দশমিক ৪০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সেরা হয়েছিলেন। এবার সেটাকে ছাপিয়ে যেতে না পারার কারণ হিসেবে করোনাকালীন সময়ে অনুশীলনের ঘাটতির কথাই বললেন তিনি।
“করোনার কারণে নিয়মিত অনুশীলন করতে পারি না। মাঝেমাঝে মাঠে আসতে পারি; মাঝেমাঝে পারি না। রুটিন কাজ থাকে। করোনা মহামারী শেষ হলে আশা করি, আপনারা আমার ভালো একটা টাইমিং দেখতে পাবেন। এখন স্বর্ণপদক পেয়েছি, এটাই শুকরিয়া।”
মেয়েদের বিভাগে ১১ দশমিক ৬০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সেরা হন শিরিন। এই ইভেন্টে শিরিনের সেনাবাহিনীর সতীর্থ শরীফা খাতুন (১১ দশমিক ৭০ সেকেন্ড) রুপা ও বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) সোনিয়া আক্তার (১২ দশমিক ১০ সেকেন্ড) ব্রোঞ্জ পেয়েছেন।
সবশেষ জাতীয় অ্যাথলেটিক্সের চেয়ে টাইমিং ভালো হয়েছে শিরিনের; চট্টগ্রামে ঘাসের ট্র্যাকে ১২ দশমিক ১০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সেরা হয়েছিলেন তিনি।
মেয়েদের ১০০ মিটার হার্ডলসে ১৪ দশমিক ৫০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সেরা হয়েছেন নৌবাহিনীর তামান্না আক্তার। তিনি পেছনে ফেলেন ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত অষ্টম বাংলাদেশ গেমসে সুমিতা রানীর ১৫.২৬ টাইমিংকে। এই ইভেন্টে অংশ নিয়েছিলেন বাংলাদেশ জেলের সুমিতাও। কিন্তু দৌঁড় শুরু করার পর পায়ে আঘাত পেয়ে সরে দাঁড়ান তিনি।
১৫ সেকেন্ড সময় নিয়ে রুপা পেয়েছেন সেনাবাহিনীর স্মৃতি খাতুন এবং ১৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে ব্রোঞ্জ পদক জেতেন একই সংস্থার জেসমিন আক্তার।
ছেলেদের ১১০ মিটার হার্ডলসে ১৪ দশমিক ৮০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সেরা হয়েছেন নৌবাহিনীর এম মাসুদ খান। সোনা জিতেই ট্র্যাক থেকে অবসরের ঘোষণা দেন এই হার্ডলার, “ইচ্ছা ছিল বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ গেমসে স্বর্ণপদক জিতে অবসর নেব। স্বর্ণপদক জিতেছি। তাই অবসরের ঘোষণা দিয়েছি।”
এই ইভেন্টে ১৪ দশমিক ৯০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সেনাবাহিনীর মির্জা হাসান রূপা এবং ১৫ দশমিক ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে নৌবাহিনীর সাইদ আহমেদ ব্রোঞ্জ পেয়েছেন।

শেয়ার