নির্বাচনের নতুন তারিখ ঘোষণা করলো নির্বাচন কমিশন
যশোর পৌরসভার ভোটগ্রহণ ৩১ মার্চ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর পৌরসভা নির্বাচনের নতুন তারিখ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। চলতি মার্চের ৩১ তারিখে নির্বাচনের এই তারিখ ঘোষণা হয়েছে। বুধবার এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে ওই তারিখে নির্বাচন অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে কমিশনের সচিবালয়। আর ওই প্রজ্ঞাপনের একটি কপিও গতকাল যশোর জেলা নির্বাচন কার্যালয়ে এসে পৌঁছেছে। এর ফলে নির্বাচনের দিন নিয়ে ধোঁয়াশা কেটে গেল। প্রজ্ঞাপনে গত ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত নির্বাচন সংক্রান্ত কার্যক্রম যে পর্যন্ত সম্পন্ন হয়েছিল; সেখান থেকে আবার শুরুর নির্দেশনা রয়েছে। জারিকৃত প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, স্থগিত থাকা নির্বাচন ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া আগামী ১৫ মার্চ বিকেল ৫টা পর্যন্ত প্রার্থীতা প্রত্যাহার করা যাবে। আর চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হবে এদিন বিকেল ৫টার পরে। আর প্রতীক বরাদ্দ হবে ১৬ মার্চ সকালে।

জানা গেছে, ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী এর আগে গত ২ ফেব্রুয়ারি ছিল মনোনয়নপত্র জমার শেষ তারিখ। এছাড়া প্রার্থীতা বাছাই ছিল ৪ ফেব্রুয়ারি, প্রার্থীতা প্রত্যাহার ও প্রতীক বরাদ্দ ছিল ১১ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু যশোর পৌরসভার সীমানা বৃদ্ধি ও সেসব এলাকার বাসিন্দাদের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত না করা নিয়ে উচ্চ আদালতে একটি রিট দায়ের হয়। আর ওই রিটের প্রেক্ষিতে গত ৯ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন স্থগিতের আদেশ দেন আদালত। এরপর আদালতের নির্দেশে নির্বাচন স্থগিত করে ইলেকশন কমিশন। কিন্তু সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগের চেম্বার আদালত নির্বাচন স্থগিতের ওই নির্দেশ স্থগিত করেন। আর এর প্রেক্ষিতে আবারও নতুন তারিখ ঘোষণা করল নির্বাচন কমিশন।

যশোর পৌরসভা নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ জানান, ৯ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন স্থগিত করা হয়। কিন্তু তফশিল অনুযায়ী প্রার্থীতা প্রত্যাহার ও প্রতীক বরাদ্দের দিন ছিল ১১ ফেব্রুয়ারি। যেহেতু প্রজ্ঞাপনে যে পর্যন্ত কার্যক্রম সম্পন্নের পর নির্বাচন স্থগিত হয়েছিল পুনরায় সেখান থেকে শুরুর নির্দেশ রয়েছে: আর নতুন তারিখের সাথে প্রার্থীতা প্রত্যাহার ও প্রতীক বরাদ্দেরও দিন ধার্য রাখা হয়েছে।

শেয়ার