যশোরে বোনকে হত্যা চেষ্টা মামলায় প্রধান শিক্ষক কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে জমি বিরোধে বোনকে হত্যা চেষ্টা মামলায় ভাই প্রধান শিক্ষক নুরুল আলমকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সকালে বাড়ি থেকে আটকের পর আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ। বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম তার জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন। আটক নুরুল আলম সদর উপজেলার চৌঘাটা ভগবতীপুর গ্রামের মৃত আবু বক্কার সিদ্দিকের ছেলে এবং ভগবতিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি আবু বক্কার সিদ্দিকের মেয়ে রুবিয়া ইয়াসমিন তার বড় বোন মর্জিনার জমি ক্রয়ের জন্য পিতার বাড়ি আসেন। ১৮ ফেব্রুয়ারি রুবিয়া ইয়াসমিনসহ অন্য ভাই বোনেরা জমি রেজিস্ট্রির জন্য সদর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে যান। দলিলের গ্রহীতার কলামে রুবিয়া ইয়াসমিন তার নাম না থাকায় তিনি রেজিস্ট্রিতে বাধা দেন। এরপর আসামি নুরুল আলম তাকে বুঝিয়ে তার বাড়িতে নিয়ে আসেন। রাতে জমি নিয়ে কথাবার্তার এক পর্যায়ে ভাই নুরুল আলাম ও তার স্ত্রী এবং আরেক ভাই নাজিম উদ্দিন তাকে বেদম মারপিট করেন।

এরমধ্যে রুবিয়ার গলায় থাকা ওড়না নুরুল ও তার স্ত্রী দুই পাশ থেকে টেনে ধরে শ্বাসরোধ করে হত্যা চেষ্টা করে। এরপর আসামিরা তার ব্যাগে থাকা জমি কেনার ৯০ হাজার টাকা নিয়ে নেন। এরমধ্যে চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করেন। এ ব্যাপারে রুবিয়া ইয়াসমিন দুই ভাই ও ভাবীকে আসামি দিয়ে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন। গতকার মঙ্গলবার তদন্ত কর্মকর্তা নুরুল আলমকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করেন। নুরুল আলমের পক্ষে আইনজীবী জামিনের আবেদন করলে শুনানি শেষে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

শেয়ার