ঘরের কাজের জন্য স্ত্রীকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার রায়

সমাজের কথা ডেস্ক॥ চীনে একটি বিবাহ বিচ্ছেদ মামলায় এক ব্যক্তিকে তাদের সংসার জীবনে গৃহকর্মের জন্য স্ত্রীকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার রায় দিয়েছেন আদালত।

দেশটির রাজধানী বেইজিংয়ের একটি বিবাহ বিচ্ছেদ আদালত যুগান্তকারী এ রায় দিয়েছে বলে বিবিসি জানিয়েছে।

পাঁচ বছরের অবৈতনিক শ্রমের জন্য ওই নারী ৫০ হাজার ইউয়ান (৭ হাজার ৭০০ ডলার) পাবেন।

আদালতের রেকর্ড অনুযায়ী, ওই ব্যক্তির ডাক নাম চেন, গত বছর স্ত্রীর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের জন্য মামলা করেছিলেন তিনি। ২০১৫ সালে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন।

তার স্ত্রী, যার ডাক নাম ওয়াং, প্রথমে বিবাহ বিচ্ছেদে রাজি ছিলেন না, কিন্তু পরে রাজি হয়ে আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়ার অনুরোধ করেন; যুক্তি দেখান চেন কোনো গৃহকর্মের বা তাদের সন্তানের দায়িত্বভার তুলে নেননি।

বেইজিংয়ের ফাংশান ডিস্ট্রিক্ট আদালত ওয়াংয়ের পক্ষে রায় দেন। ওয়াংকে মাসিক দুই হাজার ইউয়ান খোরপোষের পাশাপাশি ঘরের যে কাজকর্ম সে করেছে তার বাবদ এককালীন ৫০ হাজার ইউয়ান দিতে চেনকে নির্দেশ দেন।

বিচারক তার রায়ে, বিয়ের পর কোনো দম্পতির যৌথ সম্পত্তি বিভাজনের ক্ষেত্রে সাধারণত প্রত্যক্ষ সম্পদ বিবেচনায় নেওয়ায় হয়, কিন্তু গৃহকর্মেরও ‘অপ্রত্যক্ষ সম্পদ মূল্য’ আছে।

চীনে চলতি বছর থেকে কার্যকর হওয়া নতুন একটি পারিবারিক আইনের আলোকে এ মামলার রায় দেওয়া হয়েছে।

ওই আইনে বলা হয়েছে, বিবাহ বিচ্ছেদ মামলার স্ত্রী ক্ষতিপূরণ চাইতে পারবে যদি তিনি শিশু পরিপালন, বয়স্ক স্বজনের দেখাশোনা এবং তাদের গৃহকর্মে পার্টনারকে সহযোগিতা করার ক্ষেত্রে বেশি দায়িত্ব পালন করেন।

চীনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই মামলা নিয়ে তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি হয়। দেশটির মাইক্রোবগ্লিং প্ল্যাটফর্ম উইবোতে এ বিষয়টি ৫৭ কোটিবার দেখা হয়েছে।

গৃহকর্মের মূল্য নিয়ে বিতর্কের মধ্যে অনেকেই বলেছেন ক্ষতিপূরণে পরিমাণটি খুব কম হয়ে গেছে।

শেয়ার