ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা ২১ মে থেকে শুরুর প্রস্তাব

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ২১ মে থেকে শুরুর প্রস্তাব করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস্ কমিটি।

মঙ্গবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ডিনস কমিটির জরুরি সভায় এ প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সাদেকা হালিম।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “পরিস্থিতির কারণে এবার ভর্তি পরীক্ষায় অনেক পরিবর্তন আসছে। এই বিষয়গুলো ডিনস কমিটি সভায় আলোচনা-পর্যালোচনা করে প্রস্তাব তৈরি করা হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ডিনস কমিটির সভায় বিষয়গুলো প্রস্তাব আকরে তুলে ধরা হয়েছে। জেনারেল অ্যাডমিশন কমিটির সভায় সেটি চূড়ান্ত হবে।”

ডিনস্ কমিটি ২১ মে বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা, ২২ মে কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিটের, ২৭ মে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের, ২৮ মে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত বিভাগ পরিবর্তনের সমন্বিত ‘ঘ’ ইউনিটের এবং ৫ জুন চারুকলা অনুষদভুক্ত ‘চ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠানের প্রস্তাব করেছে।

প্রস্তাব অনুযায়ী, ৮ মার্চ থেকে অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন নেওয়া শুরু হবে এবং ৩১ মার্চ পর্যন্ত তা চলবে।

তবে ভর্তির আবেদন ফির বিষয়ে কিছু চূড়ান্ত করা হয়নি।

আগেই সিদ্ধান্ত হয়েছে, করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে ভর্তি পরীক্ষা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ছাড়াও আট বিভাগীয় শহরের বড় বড় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে কেন্দ্র স্থাপন করে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

সকাল ১১ টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত দেড় ঘণ্টা পরীক্ষা হবে। এর মধ্যে এমসিকিউ ৫০ মিনিট এবং লিখিত পরীক্ষার জন্য ৪০ মিনিট সময় বরাদ্দ থাকবে।

মোট ১০০ নম্বরের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করা হবে। এর মধ্য ৬০ নম্বরের এমসিকিউ এবং ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফলের উপর কোনো নম্বর থাকবে না। ভর্তি পরীক্ষার পাস নম্বর হবে ন্যূনতম ৪০%।

শেয়ার