সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের আইনের আওতায় আনতে হবে-এমপি নারায়ণ চন্দ্র

ফুলতলা (খুলনা) প্রতিনিধি॥ সাবেক মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি বলেছেন, সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের কোন দল নেই। ওদের পরিচয় একটাই, ওরা সন্ত্রাসী ওরা চাঁদাবাজ। ওদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে সব ধরণের সুবিধা দেয়ার পরেও সুযোগ পেলেই আবারও পূর্বের কর্মকান্ডে ফিরে যায়। সন্ত্রাসীরা যে দল ও যে মতেরই হোক না কেন, তাদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।

বুধবার দুপুরে ফুলতলার তাজপুর গ্রামে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত মোল্যা হেমায়েত হোসেন লিপুর বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের খোঁজ খবর নেন ও মতবিনিময় করেন। এ সময় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ আকরাম হোসেন, ওসি মাহাতাব উদ্দিন, ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আবুল বাশার, আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ আসলাম খান, মৃনাল হাজরা, শিল্পপতি আলহাজ্ব ইমামুল হক ভুইয়া, নিহতের লিপুর বৃদ্ধ মাতা দোলেনা বেগম, স্ত্রী হিরা বেগম, কন্যা মিথিলা, পুত্র রায়হান, রোহান ও জিসান এবং বড় ভাই মোল্যা হেমায়েত হোসেন লিটু, চাচাত ভাই মোল্যা আলমগীর হোসেনসহ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন। লিপুর মাতা দোলেনা বেগম কান্না জড়িত কন্ঠে ছেলে হত্যাকারীদের দৃষ্ঠান্তমুলক শাস্তি এবং তার শিশু সন্তানদের সহায়তার দাবি জানান। সাবেক মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এমপি অবিলম্বে হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের প্রতি নির্দেশ প্রদান করেন। প্রসঙ্গতঃ গত ১৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ফুলতলার বাজারের গরুহাট এলাকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে লিপু মোল্যা নিহত হন।

শেয়ার