অভয়নগরে পিতামাতার নামে কিশোরী আত্মহত্যা প্ররোচণার অভিযোগে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের অভয়নগর উপজেলার কাদিরপাড়া গ্রামের তিশা নামে এক কিশোরী আত্মহত্যা প্ররোচণার অভিযোগে আদালতে মামলা হয়েছে। প্রতিবেশি ইকবাল শেখ বাদী হয়ে তিশার মা এবং বাবার বিরুদ্ধে যশোর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই মামলা করেন। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শম্পা বসু মামলাটি তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন। অভিযুক্ত মৃত তিশার পিতা নেহাল তরফদার ও মা শিউলি বেগম একই গ্রামের বাসিন্দা।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, তিশা অপরিচিত এক ছেলের সাথে প্রেম করে। গত ১৫ নভেম্বর তিশা ওই ছেলেকে বিয়ে করবে বলে বাড়ি থেকে পলিয়ে যায়। রাত ১২টার দিকে কাদিরপাড়া বাজারে পরিচিত কয়েকজন তিশাকে দেখে ধরে বাড়ি দিয়ে আসে। এরপর তারা তিশাকে ঘরে আটকে রেখে শারীরিক নির্যাতন করে। এভাবে ১৫ দিন আটক রাখার পর গত ১ ডিসেম্বর বেলা ১১ টার দিকে তিশাকে ঘর থেকে বের করে তার পিতা ও মা আবারো বেদম মারপিট করে। এরমধ্যে প্রতিবেশীরা তাদের বাড়িতে আসে ভিড় জমায়। গুরুতর আহত তিশাকে কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করতে বলে তার মা-বাবা। তিশা ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে। এরপর গুরুতর অসুস্থ তিশাকে তার পিতা ও মা হাসপাতালে নিতে অপারগতা প্রকাশ করে। তিশার অবস্থার অবনতি হওয়ায় প্রতিবেশীরা তাকে প্রথমে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর তিশা মারা যায়। আসামিরা নিষ্ঠুর ও নির্দয় হওয়ায় তারা এহেন অপরাধ করায় তিনি এই মামলা করেছেন।

শেয়ার