আ’লীগ নেতা বিপুকে ধরে পুলিশের নির্যাতন
প্রতিবাদে যশোরসহ বিভিন্ন উপজেলায় সড়ক মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে পুলিশ সদস্যকে মারপিটের অভিযোগে শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম মাহমুদ হাসান বিপু ও আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দদের বাড়িতে হামলার প্রতিবাদে যশোরে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছিলো। মঙ্গলবার দিনভর জেলার আট উপজেলায় আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন সড়কে অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। পরে বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে জেলা পুলিশ আওয়ামী লীগ নেতা বিপুকে ছেড়ে দেওয়ার খবরে বিক্ষোভ স্থগিত করেন নেতৃবৃন্দ। প্রতিটি বিক্ষোভ মিছিলেই নেতৃবৃন্দ বিপুকে দ্রুত ছেড়ে দেওয়ার পাশাপাশি ন্যাংকরজনক ঘটনার সাথে জড়িতেদের শাস্তির দাবি জানান।

এসব ঘটনার প্রতিবাদে মঙ্গলবার সকাল থেকে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করেছেন নেতাকর্মীরা। এতে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ৯টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত যশোর-চুকনগর মহাসড়কের কেশবপুরে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। অভয়নগরে যশোর-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগ। যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। এছাড়া দেশের সবচেয়ে বড় স্থল বন্দর বেনাপোলে শার্শা উপজেলা ও বেনাপোল পৌর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ সড়ক অবরোধ করে। মণিরামপুর-চুকনগর সড়কের মণিরামপুর বাজারে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ করা হয়।

কেশবপুর (যশোর) থেকে এস আর সাঈদ জানান, মাহমুদ হাসান বিপুকে পুলিশের হেফাজতে নেওয়ার প্রতিবাদে মঙ্গলবার সকাল ৮ টা থেকে বেলা সোয়া ১১ টা পর্যন্ত উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শহরের ত্রিমোহিনী মোড়ে অবস্থান কর্মসূচি, সড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। তবে এ্যাম্বুলেন্স চলাচলে কোন বাধা সৃষ্টি করা হয়নি। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চলাকালে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমিন, সহ-সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কাজী রফিকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এইচ এম আমির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফা, সাংগঠনিক সম্পাদক গৌতম রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক পৌর কাউন্সিলর শেখ এবাদত সিদ্দিকী বিপুল, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মুস্তাফিজুল ইসলাম মুক্ত, দপ্তর সম্পাদক মফিজুর রহমান মফিজ, সুফলাকাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাস্টার আব্দুস সামাদ, পাঁজিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মুকুল, গৌরীঘোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিব, কেশবপুর সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আফছার উদ্দীন গাজী, সাধারণ সম্পাদক কবির হোসেন, মজিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম সরোয়ার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল হালিম, হাসানপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক জি এম আলতাফ হোসেন, পাঁজিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা জসিম উদ্দীন, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক বি এম শহিদুজ্জামান শহিদ, যুগ্ম আহবায়ক আবু সাঈদ লাভলু, উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি মিনুরানী হালদার, সাংগঠনিক সম্পাদক রেহেনা ফিরোজ, যুব মহিলা লীগের নেত্রী নার্গিস পারভীন, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান খান মুকুল, পৌর কাউন্সিলর আতিয়ার রহমান, পৌর আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান হাবিব প্রমুখ।

মণিরামপুর থেকে মোতাহার হোসেন জানান, মাহমুদ হাসান বিপুকে থানায় নিয়ে নির্যাতনের প্রতিবাদে মঙ্গলবার সকালে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করে উপজেলা আ’লীগ। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও দলীয় মেয়র কাজী মাহমুদুল হাসান। উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মুরাদুজ্জামান মুরাদের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক ফারুক হোসেন, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাড. বশির আহম্মেদ খান, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী জলি আক্তার, যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক স,ম আলা উদ্দীন, ইউপি চেয়ারম্যান গাজী মাযাহারুল আনোয়ার, আওয়ামী লীগ নেতা দিলীপ কুমার ব্যানার্জী, বাবুল আক্তার, জিয়াউর রহমান, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক শরিফুল ইসলাম রিপন, মনিরুজ্জামান মিল্টন, পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি, শ্রমিকলীগ নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন প্রমুখ। সমাবেশে শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল পৌরশহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
ঝিকরগাছা পৌর প্রতিনিধি জানান, ঝিকরগাছায় সড়ক অবরোধ করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার দুপুরে যশোর-বেনাপোল মহাসড়কে উপজেলা মোড় এলাকায় গাছের গুঁড়ি ফেলে ড্রায় ঘণ্টাখানেক অবরোধ করে রাখা হয়। এরফলে দুই পাশে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। অবরোধ শেষে সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিপুকে থানায় নিয়ে নির্যাতন করা হয়েছে। তাকে মুক্তি না দিলে বৃহত্তর কর্মসূচির ডাক দেয়ার হুশিয়ারি দেন নেতৃবৃন্দ। এসময় উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি আজহার আলী, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম বাপ্পী, শামীম রেজা, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজা, জাফিরুল হক, শাহেদুর রহমান শিপলু, আব্দুল বারিক, ইমরান রশিদ, ইমামুল হাবিব, ফারুক হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা হৃদয়, হান্নান, আরিফ, হাসিব, শান্ত, রাজ, ইমন শেখ, মিঠু প্রমুখ।

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি জানান, মাহমুদ হাসান বিপুর মুক্তির দাবিতে অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগ প্রতিবাদ সমাবেশ, বিক্ষোভ মিছিল ও মহাসড়ক অবরোধ করে। মঙ্গলবার সকালে যশোর-খুলনা মহাসড়কের নওয়াপাড়া নূরবাগ বাসস্ট্যান্ড চত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র আলহাজ্ব এনামুল হক বাবুলের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সহ-সভাপতি সানা আব্দুল মান্নান, পৌর আওয়ামী লীগ নেতা ও নওয়াপাড়া বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিয়া খানম, আওয়ামী লীগ নেতা গাজী রুহুল আমিন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আসলাম বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক মোল্যা আনোয়ার হোসেন, সাবেক কাউন্সিলর ও যুবলীগ নেতা লুৎফর রহমান বিশ্বাস, আজিম শেখ, পৌর কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক মিজান আকুঞ্জি, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক শাহ্ খালিদ মামুন, যুগ্ম আহবায়ক রওশন কবীর টুটুল, ছাত্রলীগ নেতা শেখ তসলিম, সুজন পটোয়ারী, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান মিলন, সাধারণ সম্পাদক সাব্বির আহমেদ শান্ত, ছাত্রনেতা বাবু সরদার প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক মুন্সী আব্দুল মাজেদ।

শেয়ার