চুয়াডাঙ্গায় অপরহণের সাত দিন পর মরদেহ উদ্ধার

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি॥ চুয়াডাঙ্গায় অপহরণের এক সপ্তাহ পর এক কিশোরের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
শনিবার দুপুর ১টার দিকে সদর উপজেলার যদুপুর গ্রামের এক আমবাগান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নিহত সাকিব হাসান (১৫) সদর উপজেলার যদুপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে।
গত ১৯ ডিসেম্বর তাকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করে বলে অভিযোগ নিহতের পরিবারের।
দর্শনা থানার ওসি মাহাব্বুর রহমান জানান, শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে তদন্তের স্বার্থে বিস্তারিত জানাতে চাননি তিনি।

পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা জানায়, গত ১৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হন সাকিব হাসান।

পরদিন দর্শনা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন তার মা। জিডির সূত্র ধরে অপহৃত সাকিবকে উদ্ধারে মাঠে নামে পুলিশ।

একজনকে আটক করে এক পর্যায়ে আটক ব্যক্তির স্বীকারোক্তিতে শনিবার দুপুরে যদুপুর গ্রামের এক আমবাগানের ভেতর থেকে সাকিবের মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।
নিহতের মা শেফালী বেগম জানান, ১৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় কৌশলে সাকিবকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় অপহরণ চক্রের সদস্যরা।

পরদিন তার কাছে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ছয় লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করলে তিনি দর্শনা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন বলে জানান তিনি।

 

 

 

 

শেয়ার