কয়রায় সাংবাদিকের ওপর সন্ত্রাসী হামলা মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন সুভাষ দত্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ খুলনার কয়রায় পেশাগত দায়িত্ব পালনে সংবাদ সংগ্রহ করে ফেরার পথে সুভাষ দত্ত, শেখ সিরাজউদ্দৌলা লিংকন, ওবায়দুল কবির সম্রাট নামে ৩ সাংবাদিকের ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে দৈনিক সমাজের কথা পত্রিকার কয়রা প্রতিনিধি সুভাষ দত্ত মারাত্মক জখম হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) রাত ৯ টায় উপজেলা সদরের বাস স্ট্যান্ডে এ হামলার ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় একটি সংবাদের তথ্য সংগ্রহ করতে উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন এলাকায় দুটো মোটর সাইকেলযোগে যান ওই ৩ সাংবাদিক। তথ্য সংগ্রহ করে ফেরার পথে রাত ৯ টার দিকে কয়রা বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছালে সন্ত্রাসী জাহাঙ্গীর বাহিনীর প্রধান জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে ১৫/২০ জনের একটি দল পিস্তল উঁচিয়ে মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে অতর্কিত হামলা চালায়। সাংবাদিক সুভাষ দত্তের মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে সন্ত্রাসীরা বীরদর্পে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক কয়রা থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল থেকে মুমূর্ষ অবস্থায় সুভাষকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। কয়েকদিন আগে সন্ত্রাসী বালু দস্যু জাহাঙ্গীর এর বিরুদ্ধে কয়েকটি পত্রিকায় নদী ভাঙ্গন কবলিত মদিনাবাদ লঞ্চঘাট থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের একটি সংবাদ প্রকাশ করায় এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

হত্যাসহ প্রায় অর্ধ ডজন মামলার আসামি জাহাঙ্গীর এর নেতৃত্বে গড়ে ওঠা এই সন্ত্রাসী বাহিনীটি উপজেলার এক প্রভাবশালী রাজনৈতিক ব্যক্তির পোষা সন্ত্রাসী বাহিনী। বাহিনীটি তার ছত্রছায়ায় থেকে দীর্ঘদিন যাবৎ উপজেলা সদরে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে চলেছে। কিছুদিন আগে কয়রার বিশিষ্ট আইনজীবী আব্দুর রাজ্জাকের পা কেটে নিয়ে তাকে চিরতরে পঙ্গু করে দিয়েছে। উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইখতিয়ার উদ্দিন হিরোর উপর হামলা করে। ঢাকার পিজি হাসপাতালসহ ভারতে চিকিৎসা নিয়ে বেঁচে গেলেও তাকে আজও চিকিৎসা নিতে হচ্ছে। এছাড়া বাহিনীর হাতে প্রতিনিয়ত উপজেলা সদরে আসা বিভিন্ন শ্রেণি- পেশার মানুষ লাঞ্ছিতসহ হামলার শিকার হচ্ছে। অবৈধভাবে ভাঙ্গনকবলিত স্থান থেকে বালু উত্তোলনসহ বিভিন্ন অপকর্মের সাথে লিপ্ত এই সন্ত্রাসী বাহিনীটির লালনকারী প্রভাবশালী নেতার ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। কয়রা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, তার মাথার একাংশ ও ঘাড় মারাত্মক জখম হয়েছে। অবস্থার অবনতি দেখে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়। কয়রা থানার ওসি (তদন্ত) শাহাদাৎ হোসেন বলেন, সংবাদ প্রকাশের জের ধরে এ হামলা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। ১ জনকে আটক করা হয়েছে। অন্য হামলাকারীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি ॥ দৈনিক সমাজের কথা পত্রিকার কয়রা প্রতিনিধি সুভাষ দত্তসহ তিন সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে হামলাকারীকে অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের কেন্দ্রীয় ও পাইকগাছা উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দ। বিবৃতি দাতারা হলেন কেন্দ্রীয় কমিটির আহবায়ক শহিদুল ইসলাম পাইলট, সদস্য সচিব আহম্মেদ আকু জাফর, উপজেলা কমিটির সভাপতি আব্দুল আজিজ, সহ-সভাপতি এসএম আলাউদ্দীন সোহাগ, তৃপ্তি রঞ্জন সেন, বি সরকার, আলাউদ্দীন রাজা, সাধারণ সম্পাদক এন ইসলাম সাগর, যুগ্ম সম্পাদক কৃষ্ণ রায়, কোষাধ্যক্ষ ইমদাদুল হক, এমআর মন্টু, রবিউল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক বুলি, আবুল হাসেম ও অমল মন্ডল।

শেয়ার