বাংলাদেশ-ভুটান পিটিএ স্বাক্ষর হবে দুই প্রধানমন্ত্রীর ভার্চুয়াল উপস্থিতিতে

সমাজের কথা ডেস্ক॥ বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যে অগ্রাধিকারমূলক দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য চুক্তি-পিটিএ স্বাক্ষর হতে যাচ্ছে আগামী রবিবার (৬ ডিসেম্বর)। রাজধানীর রমনায় বাংলাদেশের ফরেন সার্ভিস একাডেমি (সাবেক রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন-সুগন্ধা)তে এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ড. লোটে টি শিরিং ভার্চুয়ালি এতে উপস্থিতি থাকবেন এবং বক্তব্য রাখবেন। বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এবং ভুটানের অর্থনীতি-বিষয়ক মন্ত্রী লোকনাথ শর্মা নিজ নিজ দেশের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করবেন। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানিয়েছে, ২০২৪ সালে এলডিসি (স্বল্প উন্নত দেশ) থেকে বেরিয়ে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে বাংলাদেশ। এর ফলে সারাবিশ্বেই এলডিসি হিসেবে পাওয়া সব বাণিজ্যিক সুবিধা বন্ধ হয়ে যাবে। এতে বাংলাদেশকে বাণিজ্য ও অর্থনীতিতে নেতিবাচক পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে। সেই নেতিবাচক পরিস্থিতি সামাল দিয়ে ব্যবসা-বাণিজ্য ও অর্থনেতিক সমৃদ্ধির গতি ধরে রাখতে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে পিটিএ বা এফটিএ স্বাক্ষর করা জরুরি। সেই উদ্যোগের অংশ হিসেবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে এফটিএ বা পিটিও করার বিষয়ে আলাপ আলোচনা হচ্ছে। ইতোমধ্যে ভুটানের সঙ্গে আলোচনা শেষ করে পিটিএ স্বাক্ষরের দিনক্ষণ চূড়ান্ত করেছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের সঙ্গে পিটিএ স্বাক্ষরের জন্য প্রথম রাষ্ট্র ভুটান।

শেয়ার