গায়ের রং কালো হওয়ায় ৩ লাখ টাকা যৌতুক দাবির অভিযোগে গৃহবধূর আদালতে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ কালো হওয়ার অপরাধে ৩ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেছেন স্বামী মাসুদুর রহমান। আর স্বামীর যৌতুকের চাহিদা পূরণে ব্যর্থ হয়ে অবশেষে আদালতে যৌতুক নিরোধ আইনে মামলা ঠুকে দিয়েছেন মিম খাতুন। গতকাল জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই মামলার পর বিচারক আসামি মাসুদুর রহমানের বিরুদ্ধে সমনজারির আদেশ দিয়েছেন। আসামি মাসুদুর রহমান সদর উপজেলার সালিয়াট গ্রামের মুস্তাফিজুর রহমানের ছেলে।
সদর উপজেলার মাহিদিয়া গ্রামের লিটন বিশ্বাসের মেয়ে মিম খাতুন দায়ের করা মামলায় উল্লেখ করেছেন, ২০১৮ সালের ২ নভেম্বর এক লাখ টাকা দেনমোহর ধার্যে মিম খাতুনকে বিয়ে করেন মাসুদ। গায়ের রঙ কালো হওয়ায় বিয়ের পর থেকে স্বামী মাসুদ যৌতুক দাবিতে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন শুরু করেন মিমের উপর। এরই মধ্যে সন্তান সম্ভাবা হন মিম। কিন্তু যৌতুক দাবিতে নির্যাতনে গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়ে যায়। এরপর থেকে তার নির্যাতন আরো বেড়ে যায়। ফলে বাধ্য হয়ে পিতার বাড়ি থেকে স্বামীকে দেড় লাখ টাকা এনে দেন মিম। এতেও সন্তুষ্ট না হয়ে মাস তিনেক আগে বাকি থাকা দেড় লাখ টাকার জন্য আবারো তার উপর নির্যাতন চালানো হয়। এক পর্যায় স্বর্ণালংকার ও কাপড় চোপড় রেখে এক বস্ত্রে মিমকে পিতার বাড়ি তাড়িয়ে দেয় তার স্বামী। গত ২০ নভেম্বর মাসুদকে মিমের পিতার বাড়ি মিমাংসার উদ্দেশ্যে ডেকে নেয়া হয়। সেখানেও স্ত্রীর গায়ের রঙ কালো হওয়ায় দেড় লাখ টাকা যৌতুক না দিলে মিমকে নিয়ে আর সংসার করবেনা বলে চলে যায়। বাধ্য হয়ে গতকাল মিম খাতুন আদালতে এই মামলা করেছেন।

শেয়ার