কয়রায় উৎকোচের বিনিময়ে সরকারি সম্পত্তি ব্যক্তিনামে নামপত্তন !

কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধি॥ খুলনার কয়রা উপজেলার আমাদী ইউনিয়ন উপসহকারী ভুমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নানা দূর্নীতি অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ উঠেছে। ওই ভূমি কর্মকর্তার স্বেচ্ছাচারিতার প্রতিকার চেয়ে খুলনা জেলা প্রশাসক বরাবর গণস্বাক্ষরিত অভিযোগপত্র দায়ের করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী উপজেলার নাকসা গ্রামের মশিউর রহমান মোল্লার দাখিলকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৫ সেপ্টেম্বর কয়রার আমাদী ইউনিয়ন উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা প্রহল্লাদ রায়, কয়রা উপজেলার আমাদি মৌজার ২১৩৪, ২১৩৬, ২৩২৪, ২১০৪. ২১০৯ দাগের সরকারের ক তফসিল ভূক্ত সরকারি জমি মোটা টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন ব্যক্তির নামে খাজনা দাখিলা দিয়েছেন। এমনকি প্রতিবেদন দিয়ে নামজারিতেও সহযোগিতা করেছেন। বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক প্রকাশিত ক তফসিলভুক্ত গেজেট অনুসন্ধান করে দেখা গেছে, আমাদী ইউনিয়ন এর উপরোক্ত ৬ টি দাগ গেজেটভুক্ত জমি। এদিকে সরকারি ক তফসিলভুক্ত সম্পত্তির দাখিলা দেওয়ায় ও একই সম্পত্তি সরকারি খতিয়ান থেকে ব্যক্তি নামে নাম পত্তন হওয়ায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
সরেজমিন ওই ভূমি অফিসে গেলে স্থানীয় মন্টু ঢালীসহ ভুক্তভোগীরা ভূমি কর্মকর্তার নানা অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ তুলে ধরেন। ভুক্তভোগীরা বলেন তিনি সরকারি সম্পত্তির দাখিলা দিলেও ব্যক্তি সম্পত্তির দাখিলা দিতে তালবাহানা করেন। অন্যদিকে আমাদি ইউনিয়ন উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা প্রহল্লাদ রায় বলেন, তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সঠিক নয়। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অনিমেষ বিশ্বাস বলেন, এ ধরনের অভিযোগের বিষয় আমার জানা নেই।

শেয়ার