বড় মেঘলায় প্রতিপক্ষের হামলায় জখমের ঘটনায় মামলা, আসামি ৭

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর সদর উপজেলার বড় মেঘলা গ্রামে রোকনুজ্জামান (৪৩) নামে এক যুবককে মারপিট ও কুপিয়ে জখমের অভিযোগে কোতোয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। তিনি ওই গ্রামের মৃত বকতার আলী সরদারের ছেলে। মামলার আসামিরা হলো, শাহাদত হোসেন সরদারের দুই ছেলে সুমন হোসেন (৩২) ও মনির হোসেন (৩৫), মৃত হারেজ আলীর দুই ছেলে আলমগীর হোসেন (৪৫) ও শাহাদৎ হোসেন সরদার (৫৫), হাফিজুর রহমানের ছেলে দেলোয়ার হোসেন (৩৩), আজিজুর রহমানের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৪৫) এবং শাহাদৎ হোসেন সরদারের স্ত্রী মোমেনা বেগম (৫২)। এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, আসামিদের সাথে তার (বাদি রোকনুজ্জামান) জমি নিয়ে পূর্ব বিরোধ ছিলো। গত ২০ নভেম্বর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তিনি বাড়ির সীমানা প্রচীর দিচ্ছিলেন। সে সময় আসামিরা লোহার রড, বাঁশের লাঠি, গাছি দাসহ অন্যান্য অস্ত্র নিয়ে বাড়ির মধ্যে ঢোকে এবং সীমানা দিতে নিষেধ করে। তিনি কারণে জানতে চাইলে আসামিরা এক যোগে তাকে মারপিট ও জখম করে। এ সময় তার বড় ভাই তবিবর রহমান, ভাবি শাহিদা বেগম পারুল এবং ভাইপো আসাদুজ্জামান সুমন ঠেকাতে গেলে তাদেরকেও মারপিটে জখম করে। সে সময় চিৎকার শুনে আশেপাশের লোকজন এগিসে আসলে ফের হুমকি দিয়ে চলে যায়।
এজাহারে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, আসামিরা বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার পর তিনিসহ জখম প্রাপ্তরা যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। সে সময় আসামিদের দুই একজন হাসপাতালে গিয়ে এ বিষয়ে মামলা করলে ফের বিপদে পড়বে বলে হুমকি দেয়।

 

শেয়ার