ঝিকরগাছা নোয়ালি গ্রামের গৃহবধূ মনিরা হত্যা মামলায় এক আসামি রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ঝিকরগাছা উপজেলার নোয়ালি গ্রামের গৃহবধূ মনিরা খাতুন হত্যা মামলায় জাহিদুর রহমান শিমুলকে দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক শম্পা বসু এই আদেশ দিয়েছেন। আসামি জাহিদুর রহমান একই উপজেলার সোনাকুড় গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, আসামি জাহিদুর রহমান একই গ্রামের মনিরা খাতুনকে বিভিন্ন সময় উত্ত্যক্ত করতো। এই ব্যাপারে মনিরার মামা তাকে উত্ত্যক্ত করতে নিষেধ করলে জাহিদুর ক্ষিপ্ত হয়ে তার ক্ষতি করার ষড়যন্ত্র করতে থাকে। মনিরা খাতুনকে ২০১০ সালে নোয়ালি গ্রামে বিয়ে দেয়া হয়। বিয়ের পরও জাহিদুর তাকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করতো। ২০১৭ সালের ১১ মে মনিরা খাতুন পিতার বাড়ি বেড়াতে আসে। এদিন সন্ধ্যায় মনিরা তার ছোট চাচার বাড়িতে যায়। সেখানে রাতে খাওয়া-দাওয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়ে মনিরা। পরদিন সকালে কেউ ঘুম থেকে না উঠায় ডাকাডাকি করে দরজা খুলে দেখা যায় সকলে অচেতন হয়ে পড়ে আছে। এদের মধ্যে মনিরা খাতুন মৃত অবস্থায় ছিল। ঘরে তল্লাশি করে জাহিদুরের মানিব্যাগ, একটি আইডি কার্ড, সরবতের প্যাকেট ও মনিরার লেখা একটি টিঠি পাওয়া যায়। এব্যাপারে পরদিন নিহতের মা নাজমা বেগম বাদী হয়ে জাহিদুরসহ অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে ঝিকরগাছা থানায় হত্যা মামলা করেন। তনন্ত শেষে গত ২২ মার্চ জাহিদুরসহ দুইজনকে অভিযুক্ত করে যশোর চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশিট দাখিল করে তদন্ত কর্মকর্তা। বাদী এই চার্জশিটের উপর নারাজি আবেদন করলে বিচারক তা মঞ্জুর করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) পুনঃতদন্তের আদেশ দেয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক তৈয়বুর রহমান আটক জাহিদুরের ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করেন। গতকাল শুনানি শেষে বিচারক তাকে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

শেয়ার