অভয়নগরে কেরোসিন ঢেলে স্ত্রীর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়ার অভিযোগ

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি ॥ যশোরের অভয়নগরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্ত্রী হিরা বেগমের (৩৩) গায়ে স্বামী বিল্লাল সরদার কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার চাকই-মরিচা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। দগ্ধ হিরা বেগমকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্বামী বিল্লাল সরদার পালিয়েছে।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন দগ্ধ হিরা বেগম বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে সংসারের তুচ্ছ একটি ঘটনায় স্বামীর সাথে ঝগড়া শুরু হয়। এক পর্যায়ে স্বামী উত্তেজিত হয়ে ঘরের মধ্যে থাকা কেরোসিন তেল আমার গায়ে ঢেলে আগুন ধরিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে যান। দগ্ধ অবস্থায় ঘরের বাইরে বেরিয়ে আসলে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসেন এবং উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। খুব যন্ত্রণা হচ্ছে বলে তিনি কাঁদতে শুরু করেন এবং তাঁর মায়ের সাথে কথা বলতে বলেন।
হিরা বেগমের মা মজিদা বেগম বলেন, চাকই গরুহাটখোলা সংলগ্ন আক্কাচ আলী সরদারের ছেলে বিল্লাল সরদারের সঙ্গে আমার মেয়ে হিরার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে বিল্লাল আমার মেয়ের উপর শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে আসছে। মেয়েকে কেরোসিন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছে। আমি বিল্লালের শাস্তি দাবি করছি।
এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. টুম্পা কুন্ডু জানান, আগুনে দগ্ধ হিরা বেগমের বুক, পিঠ ও দুই হাতের সিংহভাগ পুড়ে গেছে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে প্রেরণ করা হয়েছে। রোগীর অবস্থা আশংকাজনক।
অভয়নগর থানার ওসি (তদন্ত) মিলন কুমার মণ্ডল জানান, আগুনে দগ্ধ হওয়ার ঘটনায় কোন অভিযোগ হয়নি। আপনাদের মাধ্যমে ঘটনা জানতে পারলাম। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

শেয়ার