সাতক্ষীরায় মারামারি মামলার দণ্ড কারাগারে নয়, শর্তসাপেক্ষে চার আসামি থাকবেন বাড়িতে

আব্দুল জলিল, সাতক্ষীরা॥ সাতক্ষীরায় দুই প্রতিবেশীর মধ্যে চলাচলের রাস্তা নিয়ে মারামারির ঘটনায় একই পরিবারের স্বামী স্ত্রীসহ চারজনকে তিন মাসের কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। সাতক্ষীরা জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসমিন নাহার মঙ্গলবার এই রায় দেন। তবে আসামিদের কারাগারে না পাঠিয়ে প্রবেশন আইনে আদালত তাদেরকে বাড়ি পাঠিয়েছেন কয়েকটি শর্তে।

এসব শর্তের মধ্যে রয়েছে মাদক বিরোধী প্রচার, প্রত্যেককে ২০টি করে গাছ লাগানো ও তার পরিচর্যা, বাল্যবিবাহ রোধে প্রচারণা, সবার সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখা এবং কারও সাথে কোন ঝগড়া না করা। তিন মাস পর এ শর্ত যথাযথভাবে পালিত হয়েছে কিনা সে সংক্রান্ত রিপোর্ট দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আদালত আরও জানিয়েছেন, এই শর্তে কোন বিঘœ ঘটালে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হবে। সাজাপ্রাপ্ত হয়েও বাড়িতে থাকা আসামিরা হলেন আশাশুনি উপজেলার মহিষাডাঙা গ্রামের গৌতম গাইন, মমতা গাইন, লতিকা মন্ডল ও উর্মিলা গাইন।

মামলার বাদী প্রতিবেশী নমিতা মন্ডল উল্লেখ করেন যে, দুই পরিবারের মধ্যে যাতায়াতের পথ নিয়ে বিরোধ চলছিল। এরই এক পর্যায়ে তার মেয়ে বন্যাকে গৌতম ও তার পরিবারের লোকজন মারধর করে। এ ঘটনায় তিনি আশাশুনি থানায় মামলা করেন ২০১৬ সালে। তদন্ত শেষে আশাশুনি থানা পুলিশ এ মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়। সরকার পক্ষে এ মামলা পরিচালনা করেন অ্যাড.শংকর মজুমদার। আসামি পক্ষে ছিলেন অ্যাড.একেএম রেজায়ানুল্লাহ সবুজ।

শেয়ার