প্রশাসনের সাথে হোটেল মালিক সমিতির বৈঠক নিরাপদ খাদ্য সরবরাহের প্রত্যয় ব্যক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে যৌথভাবে কাজ করার ঘোষণা দিয়েছে যশোর জেলা প্রশাসন ও যশোর হোটেল মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ। সোমবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক সভাকক্ষে ‘হোটেল ও রেস্তোরায় মানসম্মত খাবার ও পরিবেশ নিশ্চিতে’ প্রস্তুতি সভায় নেতৃবৃন্দ এ ঘোষণা দেন। জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে সভায় জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তাসহ জেলার বিভিন্ন হোটেল-রেস্তোরার মালিক ও নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান বলেন, জনস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাবারের গুরুত্ব অপরিসীম। অনিরাপদ খাদ্য গ্রহণে অনেক সময় মারাত্মক স্বাস্থ্যে ঝুঁকি থাকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার মুজিববর্ষের শপথ খাদ্য হোক নিরাপদ। আর এই নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে কঠোরভাবে আইন প্রয়োগের পাশাপাশি সবাইকে সচেতন হতে হবে। হোটেল বা রেস্তোরা ব্যবসায়ীরা প্রশাসনের শত্রু নয়। প্রশাসন বারবার জরিমানা আদায় করলেও হোটেল ব্যবসায়ীরা ঠিক একই কাজ করে আসছে। ফলে কোন উন্নতি হচ্ছে না মানসম্মত খাবার ও পরিবেশ নিশ্চিতে। তিনি ব্যবসায়ীদের অনুরোধ করেন, বারবার জেল জরিমানার টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে না পাঠিয়ে সেই টাকায় নিজ প্রতিষ্ঠানের মানসম্মত খাবার ও পরিবেশ নিশ্চিত করতে। তার পরেও কেউ আইন অমান্য করে তাদেরকে ছাড় দেয়া হবে না বলে হুশিয়ারি দেন জেলা প্রশাসক। এছাড়া নিরাপদ খাবার নিশ্চিতকরণের জন্য সরকারের বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে ব্যবসায়ীদের সহযোগী হয়ে কাজ করার অনুরোধ জানান।

জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক হুসাইন শওকত, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবুল লাইচ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) শাম্মী ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আহমেদ জিয়াউর রহমান, ভোক্তা অধিকার ও সংরক্ষণ অধিদপ্তরের যশোরের সহকারী পরিচালক ওয়ালিদ বিন হাবিব, জেলা স্যানিটরী ইন্সপেক্টর শিশির কান্তি পাল, যশোর হোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী শেখ মুকুল প্রমুখ।

শেয়ার