নৌকা প্রতীকের বাইরে দলের কেউ নির্বাচন করলে ছাড় নয়

বাঘারপাড়া উপজেলা আ’লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় নেতৃবৃন্দ

বাঘারপাড়া (যশোর) প্রতিনিধি॥ যশোর জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ বলেছেন, দলের ভিতর উচ্ছৃঙ্খল কেউ রেহাই পাবে না। ইতোমধ্যে সিরাজগঞ্জ ও নরসিংদিতে অভিযান শুরু হয়েছে। নেত্রীর নির্দেশনার বাইরে গেলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে স্বতন্ত্রপ্রার্থী হয়ে কোনো লাভ নেই। ১০ ডিসেম্বর উপনির্বাচনে প্রয়াত চেয়ারম্যান কাজলের স্ত্রী ভিক্টোরিয়া পারভিন সাথীকে জননেত্রী শেখ হাসিনা মনোনয়ন দিয়েছেন। সব ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে নৌকা মার্কার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে।

বাঘারপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন উপলক্ষে সোমবার বিকেলে মহিলা কলেজ মাঠে বিশেষ বর্ধিত সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, বিএনপি- জামায়াত চক্র এ নির্বাচনে বসে থাকবে না। তারা সুযোগ নেবে। সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। বাঘারপাড়া যে আওয়ামী লীগের ঘাঁটি তা আবারও প্রমাণ করতে হবে। নৌকার কোনো বিকল্প নাই। এসময় সকলকে ঐক্যবদ্ধ থেকে নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করার আহ্বান জানান।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন ও বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যশোর-৬ আসনের এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার। শহিদুল ইসলাম মিলন বলেন, দলের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। এসময় স্থানীয় সংসদ সদস্যকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, দলের ভিতর যতই গুটি চালাচালি করেন না কেন, কোনো কাজে লাগবে না। সব খবরাখবর তাৎক্ষণিকভাবে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার কাছে পৌঁছে যায়। স্থানীয় সংসদ সদস্যকে উদ্দেশ্য করে আরো বলেন, দল থেকে বহিষ্কার হলে কেউ সালামও দিবে না। স্বতন্ত্রপ্রার্থী দিলু পাটোয়ারীর বিষয়ে কেন্দ্রে জানানো হয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি কেন্দ্র তার দলের প্রাথমিক সদস্য পদও বাতিল করবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি আতিয়ার রহমান সরদারের সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুল মজিদ, এম এম খয়রাত হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আফজাল হোসেন, শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু, অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এনামুল হক বাবুল ফারাজী, সাধারণ সম্পাদক সরদার ওলিয়ার রহমান, অভয়নগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সহসভাপতি শাহ ফরিদ জাহাঙ্গীর, বাঘারপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসান আলী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলাইমান হোসেন বিশ্বাস, বাঘারপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও বাঘারপাড়া মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ভিক্টোরিয়া পারভিন সাথী, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সহকারী অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, বন্দবিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ ডাকু, জামদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম তিব্বত, যশোর জেলা পরিষদের সদস্য ইঞ্জিনিয়ার বিপুল ফারাজী, ইকবাল হোসেন, দোহাকুলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু মোতালেব তরফদার, নারিকেলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু তাহের আবুল সরদার, জামদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম টুটুল, বাসুয়াড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাঈদ সরদার, বাঘারপাড়া উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জুলফিক্কার আলী জুলাই, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি এসএম নিয়ামত উল্লাহ, সাবেক সভাপতি রওশন ইকবাল শাহী, শহর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মেহেদী হাসান রনি, বাঘারপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বায়েজিদ হোসেন, সম্পাদক বিএম শাহজালাল, সাবেক ছাত্রলীগনেতা আলমগীর সিদ্দিকী প্রমুখ।

 

শেয়ার