মাস্ক ব্যবহারে কড়া নজরদারি অব্যাহত ॥ যশোরে একাধিক স্থানে প্রশাসনের অভিযানে জরিমানা আদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে জনসাধারণের মাস্ক ব্যবহারে কড়া নজরদারি করছে প্রশাসন। জেলা প্রশাসনের একাধিক ম্যাজিস্ট্রেট প্রতিদিনই যশোর শহর ও শহরতলীসহ উপজেলা শহরের একাধিক স্থানে অভিযান চালাচ্ছেন। মাস্কবিহীন থাকা মানুষের জরিমানাসহ সচেতনতামূলক কার্যক্রম করছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত। রোববারও অভিযান চালানো হয়। এদিন বিকালে নিউমার্কেট বাসস্ট্যান্ড এবং চাঁচড়া বাস টার্মিনাল এলাকায় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মঈনুল ইসলাম মঈন, মনিহার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মনিরুজ্জামান, পালবাড়ি মোড়ে এবং জেলখানামোড় এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আতিকুর রহমানের নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়।

এ সময় মাস্ক পরিধান না করায় ৭ জনকে মোট ১ হাজার ৪৫০ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় জনসাধারণের মধ্যে মাস্ক বিতরণ করা হয়, মাস্ক পরিধান না করা ব্যক্তিদের মাস্ক কিনতে উদ্বুদ্ধ করা হয় এবং সচেতনতামূলক প্রচারণা চালানো হয়। গণপরিবহনে মাস্ক ছাড়া কোন যাত্রী যাতে পরিবহন না করা হয় এ মর্মে সকল বাস কাউন্টার, বাসের ড্রাইভার এবং সুপারভাইজারদের নির্দেশনা প্রদান করা হয়। এছাড়াও কেশবপুর উপজেলার কলাগাছি এবং কাটাখালি বাজারে মাস্ক পরিধান না করায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে ৭ জনকে মোট ২ হাজার ৯শ’ টাকা জরিমানা করা হয়। কেশবপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইরুফা আক্তার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।

অন্যদিকে চাল, আটা এবং ময়দা রাখার জন্য পাটজাত মোড়ক ব্যবহার না করে প্লাস্টিকের বস্তা ব্যবহার করায় পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন ২০১০ এর আওতায় যশোর শহরের বড়বাজার এলাকায় একজনকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

শেয়ার