কোভিড-১৯: যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু আড়াই লাখ ছাড়াল

সমাজের কথা ডেস্ক॥ কোভিড-১৯ মহামারীতে যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুর সংখ্যা ২ লাখ ৫০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

বিশ্বজুড়ে লাশের মিছিল বইয়ে দেওয়া এই মহামারীতে সবচেয়ে পর্যদুস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্রে বুধবার মৃত্যুর সংখ্যা ২ লাখ ৫০ হাজার ১৬ জন ছিল বলে জানাচ্ছে রয়টার্সের টালি।

মহামারী শুরু হওয়ার পর থেকে দেশটিতে শনাক্ত করোনাভাইরাস রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ১৫ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। আক্রান্ত ও মৃত্যু, এই উভয় তালিকায় বিশ্বে শীর্ষে আছে যুক্তরাষ্ট্র।

মৃত্যুর তালিকায় মাত্র ২৪ ঘণ্টায় আরও ১ হাজার ৪০০ নাম যুক্ত হয় বলে রয়টার্স জানিয়েছে।

বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৭৯ হাজার কোভিড-১৯ রোগী হাসপাতালগুলোতে ভর্তি ছিল; এ পর্যন্ত একদিনে হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীর এটিই সর্বোচ্চ সংখ্যা বলে রয়টার্সের টালি দেখিয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার দেশটির হাসপাতালগুলোতে ৭৫ হাজার রোগী ভর্তি ছিল, অর্থাৎ একদিনের ব্যবধানে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগী বেড়েছে প্রায় ৪ হাজার।

করোনাভাইরাসের তৃতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে নতুন করে সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে আর এ পরিস্থিতি দেশটির স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থার ওপর ব্যাপক চাপ তৈরি করেছে।

সংক্রমণের এ বৃদ্ধি ঠেকাতে সম্প্রতি রাজ্যগুলোর গভর্নররা ও স্থানীয় কর্মকর্তারা বিভিন্ন বিধিনিষেধ জারি করেছেন। ওহাইও রাজ্যের ক্লিভল্যান্ড শহর কর্তৃপক্ষ বাসিন্দাদের বাড়িতে থাকতে বলেছে, এমন এমন এলাকায় মাস্ক বাধ্যতামূলক করা হয়েছে যারা এর আগে এ ব্যবস্থার বিরুদ্ধে ছিল।

নিউ ইয়র্ক পাবলিক স্কুল স্টিস্টেম, যা যুক্তরাষ্ট্রে এ ধরনের সবচেয়ে বড় ব্যবস্থা, করোনাভাইরাস সংক্রমণ হারের উল্লম্ফনের কথা উল্লেখ করে বৃহস্পতিবার থেকে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান স্থগিত করেছে।

সাত দিনেরও বেশি সময় ধরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিদিন গড়ে ১ হাজার ১৭৬ জনের মৃত্যু হচ্ছে। এ সংখ্যা ভারত ও ব্রাজিলের দৈনিক গড় মৃত্যুর মোট সংখ্যার চেয়েও বেশি। যুক্তরাষ্ট্রের পর করোনাভাইরাস মহামারীতে এই দুটি দেশই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

 

শেয়ার