নওয়াপাড়া রেলক্রসিংয়ে ট্রেন দুর্ঘটনা ॥  নিহত স্বামী হিরকের পথ ধরে না ফেরার দেশে চলেন স্ত্রী শাওন

নড়াইল প্রতিনিধি॥ নওয়াপাড়া রেলক্রসিংয়ে ট্রেন দুর্ঘটনার ১২দিন পর বুধবার ভোরে মারা গেছেন আহত নড়াইলের গৃহবধূ শাওন (২৬)। এরআগে ঘটনার দিন নিহত হন তার স্বামী প্রকৌশলী হিরক ভূইয়া ভূইয়া, মেয়ে, ভাইয়ের মেয়ে ও তার বোনের মেয়ে (ভাগ্নি) মীম খানমসহ ৪ জন।
নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, খুলনায় ডাক্তার দেখাতে যাওয়ার পথে গত ১৬ অক্টোবর (শুক্রবার) বিকেল পৌনে ৫টার দিকে নওয়াপাড়া রেলক্রসিংয়ে খুলনাগামী মহানন্দা ট্রেনের ধাক্কায় প্রাইভেটকারের চারযাত্রী নড়াইল শহরের ভওয়াখালী এলাকার মৃত সানাউল্লাহ ভূঁইয়ার ছেলে প্রকৌশলী হিরক ভূঁইয়া (৩৪), মেয়ে শিল্পী খানম (৩২), হিরোক ভূঁইয়ার ভাই রনির মেয়ে রাইসা (৮), রুপগঞ্জ-কুড়িগ্রাম এলাকার বাসিন্দা হিরক ভূঁইয়ার বন্ধু আশরাফুল ইসলাম (৪২) মারা যান। এ ঘটনায় আহত হন নিহত হিরকের স্ত্রী শাওন ও এক বছরের মেয়ে হুমায়রা। আহত শাওনকে প্রথমে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। আহতের ১২দিন পর বুধবার ভোর ৫টার দিকে তিনি (শাওন) মারা যান।
জানা গেছে, প্রকৌশলী হিরকের স্ত্রী শাওনকে তার বাবার বাড়ি রাজবাড়ী শহরের চর লক্ষীপুর এলাকায় দাফন করা হবে। হিরকের সন্তান হুমায়রা এখন রাজবাড়ীতে নানা মোঃ হারুনর রশিদ এবং নানী সালমা আক্তার মিনুর কাছে রয়েছে। নিহত হিরক-শাওন দম্পতির একমাত্র মেয়ে আহত হুমায়রা ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। দুর্ঘটনায় তার বাম হাত ভেঙ্গে যায়। এদিকে এই দুর্ঘটনার পর হুমায়রার এক ফুফু ছাড়া পিতৃকূলের আর কেউ বেঁচে রইলো না।

শেয়ার