যশোরে সবজি ব্যবসায়ীর বাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে এক সবজি ব্যবসায়ীর বাড়িঘর পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার মধ্য রাতে কে বা কারা যশোর সদর উপজেলার কচুয়া ইউনিয়নের নিমতলী গ্রামের আখের আলী মোল্লার ছেলে আবু বাক্কারের বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। দুর্বৃত্তের দেওয়া আগুনে আবু বাক্কারের দুই মেয়ে ও স্ত্রীকে বাঁচাতে পারলেও তার ৫ লক্ষাধিক টাকা ক্ষতি হয়েছে।
ক্ষতিগ্রস্ত বাক্কার জানান, সবজি বিক্রি করে তার সংসার চালানোর পাশাপাশি অনেক কষ্টে টিন দিয়ে বাড়িটি বানানো হয়েছে। কিন্তু দুর্বৃত্তের দেওয়া আগুনে পুড়ে এখন সব শেষ হয়ে গেছে। তিনি প্রতিবেশী মশিয়ারের দিকে অভিযোগের তীর দিয়ে বলেন, তাদের বাড়ি থেকেই সাইড লাইন নিয়ে তার বাড়িতে বিদ্যুৎ চলছিল। কিন্তু বিল ভাগাভাগি নিয়ে সম্পর্কের অবনতি হয়। সেই থেকেই বক্কারের পরিবারের ওপর নানাভাবে অত্যাচার করতে থাকে মশিয়ার ও তার স্ত্রী। রাতে ঘরের চালে ঢিল ছোড়া, বাড়ি থেকে বিভিন্ন জিনিস চুরি হওয়ার মতও ঘটনা ঘটতে থাকে। পূর্বশত্রুতার জেরে মশিয়ার এই কাজ করতে পারে বলে তিনি অভিযোগ করেন। আগুনে তার ৫ লক্ষাধিক টাকার বেশি ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি।
বাক্কারের স্ত্রী রাবেয়া বলেন, প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে চেষ্টার পর আগুন নিভাতে সক্ষম হন তারা। পরে বিদ্যুত অফিসের লোক এসে দেখে বলেন এটি শর্ট সার্কিট থেকে হয়নি। কেউ হয়ত আগুন লাগিয়ে দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন, পরনের কাপড় ছাড়া আর কিছুই নেই। হাড়ি-পাতিল, সংসারের আসবাবপত্রসহ যাবতীয় জিনিস পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আমরা এখন কি খাবো কোথায় থাকবো। তবে তাদের বিরুদ্ধে এমন ষড়যন্ত্রমূলক অভিযোগ মিথ্যা দাবি করে অভিযুক্ত মশিয়ার রহমান বলেন, এসব মিথ্যা কথা। এ বিষয়ে কচুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। এ বিষয়ে জানতে চাইলে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। কোন অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থাা নেওয়া হবে।

শেয়ার