কপোতাক্ষ নদে নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতায় গোপসেনা দল প্রথম
নৌকাবাইচ নদীমাতৃক বাংলাদেশের হাজার বছরের ঐতিহ্য : শাহীন চাকলাদার এমপি

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি ॥ যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনের সংসদ সদস্য ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার বলেছেন, নৌকাবাইচ নদীমাতৃক বাংলাদেশের হাজার বছরের ঐতিহ্য। নদীমাতৃক এদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি, আনন্দ আয়োজন, উৎসব ও খেলাধুলাসহ অনেক কিছুতেই নদী ও নৌকার সম্পৃক্ততা রয়েছে। হাজার বছরের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সংস্করণ নৌকাবাইচ। একসময় এদেশে যোগাযোগের প্রধান মাধ্যম ছিল নদী কেন্দ্রিক, আর বাহন ছিল নৌকা। তাই নৌশিল্পকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠে বিভিন্ন শিল্পকেন্দ্র। এসব শিল্পে যুগযুগ ধরে তৈরি হয় দক্ষ ও অভিজ্ঞ কারিগর। এভাবে একসময় বিভিন্ন নৌযানের মধ্যে প্রতিযোগিতা শুরু হয়।
গতকাল সন্ধ্যায় তিনি মহাকবি মাইকেল মধুসূদন সমাজকল্যাণ সংঘের উদ্যোগে মহাকবি মাইকেলের পৈত্রিক ভূমি কেশবপুরের সাগরদাঁড়ি কপোতাক্ষ নদে অনুষ্ঠিত নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

ইউপি সদস্য সুভাষ দেবনাথের সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামী লীগনেতা মহিবুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুল মজিদ, কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শিক্ষাবিদ এস এম রুহুল আমিন, সহসভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এইচ এম আমির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফা, সহসভাপতি অ্যাড. রফিকুল ইসলাম পিটু, কেশবপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক কার্ত্তিক চন্দ্র সাহা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গৌতম রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক পৌর কাউন্সিলর শেখ এবাদত সিদ্দিক বিপুল, সাংগঠনিক সম্পাদক সাগরদাঁড়ী ইউপি চেয়ারম্যান কাজী মুস্তাফিজুল ইসলাম মুক্ত, সাগরদাঁড়ী ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান শাহাদাৎ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক মফিজুর রহমান মফিজ, উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক প্রভাষক কাজী মুজাহীদুল ইসলাম পান্না, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কাজী আজাহারুল ইসলাম মানিক প্রমুখ। প্রতিযোগিতায় ৯টি দল অংশ নেয়। গোপসেনা নৌকাবাইচ দল প্রথম, সাগরদাঁড়ী উত্তর নৌকাবাইচ দল দ্বিতীয় এবং সাগরদাঁড়ী দক্ষিণ নৌকাবাইচ দল তৃতীয় হয়।

 

 

শেয়ার