যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে আরও এক কিশোরের আত্মহত্যা চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে সায়েম হাওলাদার নামে আরও এক বন্দি কিশোর আত্মহত্যা চেষ্টা করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে ৫০ নম্বর হাউজের দ্বিতীয় তলায় গলায় গামছা দিয়ে আত্মহত্যা চেষ্টা চালায়। সায়েম পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার গাদিরচর গ্রামের মৃত বাদশা হাওলাদারের ছেলে। এর একদিন আগে ওই কেন্দ্রের মধ্যে আবির হোসেন রানা নামে আরেক বন্দি কিশোর আত্মহত্যা চেষ্টা চালায়।
একটি সূত্রে জানা গেছে, পটুয়াখালীর দশমিনা থানার একটি মামলায় আটক হয়ে গত ২০ সেপ্টেম্বর যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে আনা হয়। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই কেন্দ্রের দ্বিতীয় তলায় ৫০ নম্বর হাউজে জানালার গ্রিলের সাথে গলায় গামছার ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা চেষ্টা করে। এসময় ওই হাউজে থাকা অন্য বন্দি কিশোররা কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে। পরে উন্নয়ন কেন্দ্রের সহকারউ পরিচালক জাকির হোসেন সায়েমকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু এসময় ওই কেন্দ্রের গাড়ি নষ্ট থাকায় একটি ইজিবাইকে করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম। এর আগে গত সোমবার শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে আবির হোসেন রানা নামে আরেক কিশোর আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। অসুস্থ অবস্থায় তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যার দিকে তাকে যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে এই ঘটনার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আবির হোসেন রানা ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন উপজেলার টবগী গ্রামের নয়ন আহম্মেদের ছেলে।

শেয়ার