ভোট শেষ না হওয়া পর্যন্ত কেন্দ্র পাহারা দিতে হবে : অধ্যাপক নার্গিস বেগম

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগম বলেছেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে অংশ নেয়ার জন্যে সদর উপজেলা পরিষদের উপ নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিয়েছে। এই নির্বাচনে লড়াই সংগ্রামের মধ্য দিয়ে হলেও আমরা আদায় করেই ছাড়বো। বিএনপির কোন সন্ত্রাসী শক্তি নেই। আছে জনগণের শক্তি। শাসকদলের সন্ত্রাসী শক্তি আছে বলেই প্রতিটি নির্বাচনে তারা ভোট ডাকাতি করে। এবারের নির্বাচনে জনগণের ঐক্যবদ্ধ শক্তির কাছে ভোট ডাকাতরা পালিয়ে যাবে।
গতকাল শুক্রবার জেলা বিএনপি কার্যালয়ে সদর উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সভায় অধ্যাপক নার্গিস বেগম আরও বলেন, সরকারের সীমাহীন দমন-পীড়নের মধ্যেও জনগণ আজও বিএনপিকে হৃদয়ে ধারণ করেন। তারা মনে প্রাণে বিশ্বাস করেন। দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব, গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার প্রতীক ধানের শীষ। যে কারণে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপনির্বাচনে শুরু থেকে ধানের শীষের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। কোন সন্ত্রাসী শক্তি ধানের শীষের গণজোয়ার ঠেকাতে পারবে না। জনগণই সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করে বিজয় নিশ্চিত করবে। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিএনপি প্রার্থী নূর-উন-নবী, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকন, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য অ্যাড. হাজী আনিছুর রহমান মুকুল, সিরাজুল ইসলাম, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আজম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক মীর নূর ইমাম, কোষাধ্যক্ষ আব্দুর রহিমসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ। এদিকে জুম্মার নামাজ শেষে পৌরসভা ও সদর উপজেলার বিভিন্ন মসজিদের মুসল্লিদের সাথে স্থানীয় বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। এসময় তাদের হাতে ধানের শীষের লিফলেট দিয়ে ভোট ও দোয়া চান।

 

শেয়ার