শিশু সন্তানকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টা মা ও নানীর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ ৩ লাখ টাকা না পেয়ে নিজের শিশু সন্তানকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে শিশুটির মা ও নানীসহ দুইজনের বিরুদ্ধে যশোর আদালতে মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া এলাকার দাউদ আলী সরদার বাদী হয়ে যশোরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইবুন্যাল-২ এই মামলা করেন। বিচারক মাহমুদা খাতুন অভিযোগটি আমলে নিয়ে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)কে আদেশ দিয়েছেন। একই সাথে আগামী ২৫ নভেম্বর মামলার পরবর্তী দিন ধার্য্য করা হয়েছে। আসামিরা হলেন, শিশুটির মা তামান্না খাতুন ও নানী সাকিরন বিবি।
বাঁকড়ার মৃত খলিল সরদারের ছেলে দাউদ সরদারের অভিযোগ, তামান্না খাতুনের গর্ভে আলামিন জন্ম হওয়ার পর নানী শাকিরন বিবি বাদী হয়ে জামাই দাউদ সরদারের বিরুদ্ধে আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। সেই মামলায় আপোস মিমাংসার কথা বলে শিশুর নানী শাকিরন বিবি ও মা তামান্না খাতুন তার কাছ থেকে প্রথমে ৬ লাখ টাকা নেন। এরপর তামান্না খাতুনের সাথে তার বিয়ে হয়। পরে তিনি আলামিনকে সন্তান হিসেবে স্বীকৃতি দেন। এ ঘটনার পর আদালতের মাধ্যমে আরও ৫ লাখ টাকা দিয়ে তামান্না খাতুনকে তিনি তালাক প্রদান এবং আলামিনকে মা ও নানীর জিম্মায় লালন পালনের জন্য রাখা হয়। অপরদিকে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় আপোসের শর্তে স্বাক্ষী প্রদানের মাধ্যমে আগামী ১ নভেম্বর রায় ঘোষণার দিন ধার্য্য রয়েছে। কিন্তু এরই মধ্যে শাকিরন বিবি রায়ের আগেই দাউদ সরদারের কাছে আরও ৩ লাখ টাকা দাবি করেন। কিন্তু তিনি টাকা দিতে অস্বীকার করেন। এরপর গত ৭ অক্টোবর শাকিরন বিবি তাকে জানান, ৩ লাখ টাকা না দিলে আলামিনকে নির্যাতন করা হবে। এর পরদিন ভোরে তিনি জানতে পারেন নানী ও মা দু’জনে মিলে শিশু আলামিনকে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টা চালিয়েছেন।

শেয়ার