যশোর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচন বিষয়ে জেলা আ’লীগের বর্ধিত সভা
নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে কেউ কাজ করলে কঠোর ব্যবস্থা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর সদর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ থেকে বিজয় নিশ্চিত করতে নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। একইসাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিরুদ্ধে কেউ কাজ করলে তাদের বিরুদ্ধে দলীয় কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার এমপি এ ব্যাপারে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন। বুধবার বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিতসভা থেকে এ নির্দেশ দেয়া হয়।
বর্ধিতসভা শেষে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম মাহমুদ হাসান বিপু জানান, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে আমরা বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। নুরজাহান ইসলাম নীরাকে সদর উপজেলা পরিষদের উপনির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন তিনি। নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিজয়ের লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। একইসাথে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি করা হয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলনকে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে। পুরো কমিটি প্রতীক বরাদ্দের আগেই ঘোষণা করা হবে। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলনের সভাপতিত্বে বর্ধিত সভায় বক্তব্য রাখেন যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য, সহসভাপতি আবদুল মজিদ, হায়দার গণি খান পলাশ, মুক্তিযোদ্ধা খয়রাত হোসেন, আবদুল খালেক, মোহাম্মদ আলী রায়হান, গোলাম মোস্তফা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম, আশরাফুল আলম লিটন, মীর জহুরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান আফজাল হোসেন, মোস্তফা ফরিদ আহমেদ চৌধুরী, প্রচার সম্পাদক মুন্সী মহিউদ্দিন, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নুর জাহান ইসলাম নীরা, যশোর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান আসাদ, সাধারণ সম্পাদক এস এম মাহমুদ হাসান বিপু।

শেয়ার