যশোরে মোটরসাইকেল ও ইজিবাইকের গ্যারেজ পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ,আটক ১

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ পূর্ব শত্রুতার জের ধরে যশোরে মোটরসাইকেল ও ইজিবাইকের গ্যারেজ পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার মামলায় হাবিব নামে এক সন্ত্রাসীকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার দিবাগত রাতে শহরের বেজপাড়া এলাকায় এই ঘটনার পর মোটরসাইকেলের মালিক রমজান আলী বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেছেন। মামলায় আটক হাবিবসহ ৬ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩জনকে আসামি করা হয়েছে। আটক হাবিব শহরের বেজপাড়া মসজিদ বাড়ি রোডের মৃত রোস্তম আলীর ছেলে। এই মামলার অন্য আসামিরা হলো, বেজপাড়া বিহারী কলোনীর আলমের ছেলে রাব্বি, বাবলুর ছেলে খুরশিদ, আসলাম কসাইয়ের তিন ছেলে জনি, কালু ও আকাশ।
বাদী মামলায় উল্লেখ করেছেন, বাদী শহরের বকচর হুশতলা আবাসিক পাড়ার আব্দারের বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করেন। আসামিরা এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী। তাদের বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। আসামিরা সন্দেহ করে যে বাদী রমজান আলী তাদের বিভিন্ন অপরাধ মূলক কর্মকা-ের তথ্য পুলিশকে জানান। এই নিয়ে তাকে ইতিপূর্বে কয়েকবার হুমকি দিয়েছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে বাদী বেজপাড়ার রেজাউল করীম সোহাগের বাড়িতে দাওয়াত খেতে যান। সোহাতের বাড়িতে গিয়ে তার ইজিবাইকের গ্যারেজে নিজের ব্যবহৃত এপাচি আরটিআর মোটরসাইকেলটি রেখে ঘরের মধ্যে খাওয়া-দাওয়া করেন। এরই মধ্যে আসামিরা সোহাগের ইজিবাইকের গ্যারেজে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এসে রমজান আলীর মোটরসাইকেল, সোহাগের ইজিবাইকের ব্যাটারি ও ঘরসহ ৩ লাখ ১৬ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে। এই ঘটনায় রাতেই থানা পুলিশকে জানিয়ে মামলা করা হয়। পুলিশ হাবিবকে আটক করে বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

শেয়ার