আশাশুনিতে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে মানববন্ধন

আব্দুল জলিল, সাতক্ষীরা ॥ সাতক্ষীরার আশাশুনির খাজরা ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ, শিক্ষক নিয়োগের নামে অর্থ বাণিজ্য, বন্যাদুর্গত মানুষের ত্রাণ ও সরকারি টাকা আত্মসাতসহ বিভিন্ন অনিয়ম দুনীর্তির প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসুচি পালিত হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে বানভাষী মানুষের ব্যানারে মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় প্রতাপনগর ইউনিয়নের তালতলা বাজারে এই মানববন্ধন কর্মসুচি পালিত হয়।
এতে বক্তব্য রাখেন, প্রতাপনগর ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সামাদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মুক্তিযোাদ্ধা সন্তান কমান্ডের সদস্য বাবুল হোসেন, প্রতাপনগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান মিলন, সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সদস্য হারুনার রশিদ, গাজী আরিফিন, আক্তার হোসেন, অমীর কুমার সোম প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, এলজিএসপি, কাবিটা, কাবিখা, জলবায়ু ট্রাষ্টের গৃহ নির্মাণ প্রকল্পসহ বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের টাকা আতœসাৎ করে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে গত নয় বছরে কোটি কোটি টাকা লুটপাট করেছেন চেয়ারম্যান জাকির। করোনাকালিন সময়ে প্রধানমন্ত্রী প্রতাপনগরে যে সরকারি অনুদান দিয়েছেন তা অসহায় দুস্থ মানুষের মাঝে না দিয়ে তিনি স্বজনপ্রীতি করেছেন। আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের বরাদ্দকৃত ত্রাণ ও নগদ টাকা লুটপাট করেছেন এই চেয়ারম্যান। বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধি ভাতার সাত লক্ষাধিক টাকা আত্মসাৎ করেছেন। নিজে এসএসসি পাশ হয়েও নিয়মবহির্ভুতভাবে তিনটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সভাপতি হয়ে গত নয় বছরে শিক্ষক ও কর্মচারি নিয়োগ এবং এমপিও বাণিজ্যের নামে কয়েক কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলেও অভিযোগ করেন বক্তারা। এছাড়া তার বিরুদ্ধে এক সময়ের সাঈদী মুক্ত মঞ্চ পরিচালনাকারি নাশকতা মামলার আসামিদের আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠেনর বিভিন্ন পদে বসিয়ে মুক্তিযুদ্ধের শক্তির বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ারও অভিযোগ রয়েছে। বক্তারা এ সময়, মহা-দুর্নীতিবাজ চেয়ারম্যান জাকিরের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাসহ তার চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতির পদ থেকে অপসারণের জোর দাবি জানান।

শেয়ার