শ্রীলঙ্কায় দু’সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনের বিপক্ষে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীও

সমাজের কথা ডেস্ক॥ এমন নয়, তার কথা ও আহ্বানে বরফ গলেছে। লঙ্কান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বরং করোনা ইস্যুতে আরও সতর্ক, সাবধানী ও অনমনীয় রয়েছে। সাথে সামরিক বাহিনীর সমন্বয়ে রীতিমত করোনা টাস্কফোর্সও গঠন করা হয়েছে। তারপরও নিজ দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে কোয়ারেন্টাইনের ব্যাপারে কঠোর অবস্থান থেকে খানিক নমনীয় হবার আহ্বান জানিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কান ক্রীড়ামন্ত্রী নামাল রাজাপাকসে। তার কথা ফলাও করে প্রচার হয়েছিল লঙ্কান মিডিয়ায়।
এবার ক্রিকেট দলের শ্রীলঙ্কা সফর নিয়ে মুখ খুললেন বাংলাদেশের ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলও। রোববার স্থানীয় এক পাঁচ তারকা হোটেলে ‘জয়তু শেখ হাসিনা’ আন্তর্জাতিক অনলাইন দাবা প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের সাথে আলাপে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলও জানিয়ে দিয়েছেন, ‘আসলে শ্রীলঙ্কা সফর গিয়ে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকলে ক্রিকেটারদের প্রস্তুতিতে বড় ধরনের ব্যাঘাত ঘটবে। ঘর থেকে এক পা বের হতে না পারলে ফিটনেস লেভেল যাবে কমে এবং তা পারফরমেন্সের ওপরও নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে।’
এ কারণেই যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেলের প্রেসক্রিপশন হলো, ‘শ্রীলঙ্কায় হোটেলে দুই সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে থাকলেও তাদের ফিটনেস ট্রেনিং ও স্কিল ট্রেনিংয়ের সুযোগ করে দিতে হবে। তবেই কেবল শ্রীলঙ্কা গিয়ে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকা সম্ভব হবে।’
তিনি বলেন, ‘যাতে ক্রিকেটারদের হোটেলে জিমওয়ার্ক করার সুবিধা থাকে এবং তারা প্র্যাকটিস করতে পারে- এমন ব্যবস্থা হলেই কেবল ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন সম্ভব। অন্যথায় শ্রীলঙ্কা গিয়ে ১৪ দিন হোটেল রুমে অবরূদ্ধ থাকা কিছুতেই সম্ভব নয়।’
জাহিদ আহসান রাসেল আরও বলেন, ‘মহামারির এই সময়ে একটা সিরিজ হবে এটা আমরা অনেক আগ্রহের সঙ্গে নিয়েছি, আমরা এবং আমাদের খেলোয়াড়রাও এ সিরিজের জন্য মুখিয়ে আছে। সিরিজে অংশগ্রহণের জন্য অনুশীলনের মধ্যেও আছে ক্রিকেটাররা। ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আমাদের সাবর্ক্ষণিক আলাপ-আলোচনা চলছে।’
তিনি যোগ করেন, ‘তারা (শ্রীলঙ্কা) যে বিধিনিষেধ দিয়েছে, এখানে বলেছি, আমরা আমাদের যে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা সেটি কিছুটা কমানো। পাশাপাশি হোটেল কক্ষে থাকার যে বিধিনিষেধ দেয়া হয়েছে, আমরা বলেছি যে ‘না’। একজন খেলোয়াড় যদি ১৪ দিন রুমের মধ্যে বসে থাকে তাহলে ফিটনেসের ঘাটতি হবে, তাহলে সে খেলাধুলা কিছু দেখাতে পারবে না। আমরা বলেছি যে হোটেলের যে সুযোগ-সুবিধা আছে জিম থেকে শুরু করে অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা- সেগুলো আমরা যাতে ব্যবহার করতে পারি, তার জন্য যেন আমাদের সুযোগটা দেওয়া হয়।’
ক্রীড়ামন্ত্রীর প্রত্যাশা, ‘এ বিষয়ে আজ শ্রীলঙ্কা থেকে সিদ্ধান্ত আমাদের পাবার কথা। আমরা আশা করছি, এটা পেলে আজকে ক্রিকেট বোর্ড থেকে একটা মেসেজ পাবেন, আশা করছি আজকের মধ্যেই।’

শেয়ার