তালায় সর্বহারা পরিচয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগে থানায় ৩ জনের জিডি

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ॥ সাতক্ষীরার তালায় সর্বহারা পার্টি পরিচয়ে ৩ জনের কাছে চাঁদা দাবির অভিযোগে থানায় জিডি হয়েচে। তারা চাঁদা না পেলে মেরে ফেলা হবে বলেও হুমকি দিয়েছে। এঘটনায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে তিনজন তালা থানায় জিডি করেছেন।
তালা উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের জেঠুয়া গ্রামের মাজেদ আলী গাজীর ছেলে কৃষ্ণকাটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আছাদুল হক জানান, ২১ সেপ্টেম্বর বিকাল ৫টার দিকে তাকে ফোন দিয়ে নিজের নাম অবসরপ্রাপ্ত মেজর জিয়া ও তিনি সর্বহারা পার্টির চেয়ারম্যান পরিচয় দিয়ে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। দাবিকৃত টাকা পাঠাতে দেয়া হয় বিকাশ নাম্বার। এসময় দাবিকৃত টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে, কত দিতে পারবেন বলে জানতে চায় ওই ব্যক্তি। আবারও অপারগতা প্রকাশ করলে তাকে গালিগালাজ ও জীবননাশের হুমকি দিয়ে মোবাইল সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। তিনি তালা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন।
একই উপজেলার মাগুরা ইউনিয়নের ধুলান্ডা গ্রামের মৃত শৈলন্দ্রনাথ দাশের ছেলে ও তালা সরকারি কলেজের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত প্রভাষক সন্তোষ কুমার দাশ জানান, ২০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৬টার সময় একই পরিচয় দিয়ে ২ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয় তার কাছে। দাবিকৃত টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে বিকাশে দ্রুত ২০ হাজার টাকা পাঠাতে বলা হয় এবং না পাঠালে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় তিনি ওইদিনই তালা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। তাদের মতো এমন ঘটনার সম্মুখীন হয়েছেন আরও অন্তত আটজন।
তালা থানার উপ-পরিদর্শক প্রীতিশ রায় জানান, তাদের কাছে সর্বহারা পার্টির পরিচয়ে চাঁদা দাবির তিনটি অভিযোগ এসেছে। সিডিআরের মাধ্যমে সর্বহারা পার্টির প্রধান পরিচয়দানকারীর অবস্থান নিশ্চিত করে তাকে গ্রেফতারে ইতিমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে।
তালা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী রাসেল জানান, এলাকায় সর্বহারা পার্টির কোনো অস্তিত্ব নেই। কোনো প্রতারক এটা করছে। সর্বহারা পার্টির নামে চাঁদা দাবি ও হুমকি-ধমকির অভিযোগে তিনজন জিডি করেছেন। মোবাইল নাম্বার ট্র্যাক করে তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

শেয়ার